॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

অবশেষে একমাস পর মুক্তি পেলো ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সমর্থিত হিল উইমেন্স ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দয়া সোনা চাকমা এবং সংগঠনটি রাঙামাটি শাখার সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ।

বৃহস্পতিবার (১৯এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের মধুপুর (তেতুলতলা ) এপিবিএন স্কুল গেইট এলাকায় স্থানীয় মুরব্বীদের মাধ্যমে দুর্বৃত্তরা ছেড়ে দেয় বলে ইউপিডিএফ’র মুখপাত্র মাইকেল চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) লিমন বোস জানান, আমরা লোকমুখে শুনেছি দয়া সোনা চাকমা ও মন্টি চাকমাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তবে দয়া সোনা ও মন্টি চাকমার পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোন যোগাযোগ করা হয়নি।

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, এ ঘটনার সত্যতা জানার জন্য দয়া সোনা চাকমার বাবা ও মামলার বাদী বিষধন চাকমার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টার পরও তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ ছিলো।

প্রসঙ্গত: চলতি বছরের ১৮মার্চ রাঙামাটির কুতুকছড়িতে ইউনাইটেড পিপলস
ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টে (ইউপিডিএফ) এবং ইউপিডিএফ সংস্কার দুই গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষে একজন গুলিবিদ্ধ এবং হিল উইমেন্স ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দয়া সোনা চাকমা এবং সংগঠনটি রাঙামাটি শাখার সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমাকে অস্ত্রের মুখে গুম করে তাদের বিরোধী পক্ষ ।

এ ঘটনার পর দয়াসোনা চাকমার পিতা বিষধন চাকমা চলতি বছরের ২০মার্চ রাঙামাটি কোতয়ালী থানায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি সংস্কারের (এমএন লারমা গ্রুপ) অঘোষিত নেতা ও নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা ও ইউপিএিফ সংস্কারের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমাকে (বর্মা) প্রধান আসামী করে সর্বমোট ১৯জনের বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছিলো।