॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেছেন- আসন্ন নির্বাচনে অবৈধ অস্ত্রধারী ভোট ডাকাতের দল বিএনপি’র ঘাড়ে ভর করেছে। এসব অস্ত্রবাজি দলগুলো মনে করে বিএনপিতে একাধিক প্রার্থী। তাই বিএনপি’র তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা তাদের ভোট প্রদান করবে।

সোমবার (২৬নভেম্বর) বিকেলে বনরূপস্থ নির্বাচনী কার্যালয়ে পৌর আ’লীগের উদ্যোগে আয়োজিত নির্বাচনী প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন- এবার এটাও শোনা যাচ্ছে জেএসএস নির্বাচন থেকে সরে দাড়াবে। ইউপিডিএফ থেকেও মনোনয়ন পত্র নিয়েছে। কিন্তু তারা জমা দিতে পারে আবার নাও দিতে পারে। সুতারাং আমাদের এগুলো বড় কথা নয়। শত্রু যেই হোক না কেন আমরা তাদের দুর্বল ভাববো না। এই শত্রুদের পরাজিত করার শক্তি আমাদের আছে। এই ধীর মনোভাব নিয়ে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা নিয়ে দীপংকর তালুকদার জানান- অনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হবে তখন কে দলের পাশে দাড়াচ্ছে কে দাড়াচ্ছে না, এসমস্থ বিষয়গুলো আরো বেশি স্পষ্ট হয়ে দাড়াবে। আমরা তখন আরো বেশি সভা, সমাবেশ ইত্যাদি করবো। বিজয়ের জন্য পরিশ্রমের কোন বিকল্প নেই।

রাঙামাটি পৌর আওয়ামষীলীগের সভাপতি সোলায়মান বাদশাহ’র সভাপতিত্বে সভায় এসময় জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি চিংকোয়ারোয়াজা, সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতাব্বর সাংগঠনিক সম্পাদক জমির উদ্দিন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মনসুর আলী, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, প্যানেল মেয়র জামাল উদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুল জব্বার সুজন উপস্থিত ছিলেন।

মনোনয়নের বিষয়ে দীপংকর বলেন, আমাদের রাঙামাটির নেতা-কর্মীরা এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। অন্যন্যা আসনে ৫২জন, ৩২, ২০জন পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। আমাদের পাশ্ববর্তী জেলা খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানেও অনেকজন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন কিন্তু রাঙামাটির আসনে শুধু একজনই মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন এবং তিনিও দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। এতে করে প্রমাণ হয়, এর চাইতে দলের প্রতি সংহতিবোধ, অনুগতবোধসহ দৃষ্টান্ত আর হতে পারে না। আর এই দৃষ্টান্ত আ’মীলীগের নেতৃবৃন্দরাই সৃষ্টি করেছে বলে জানান পাহাড়ের নেতা।