॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় দলীয় অন্তর্কোন্দলের কারণে উপজেলা বিএনপি সভা বাতিল হয়েছে। বুধবার (১২ডিসেম্বর) বিকেলে সভাটি বাতিল হয় বলে বিএনপি সূত্রে জানানো হয়।

বিএনপি’র সূত্রটি জানায়- আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় প্রার্থীকে নির্বাচিত করার লক্ষ্যে উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান দিলদার হোসেনের নেতৃত্বে উপজেলার বিভিন্ন স্থরের নেতৃবৃন্দদের সমন্বয়ে নতুন বাজার এলাকায় জিয়া স্মৃতি সংসদে নির্বাচনী সভার আহ্বান করেন।

উক্ত সভায় জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক দীপেন তালুকদার দীপু প্রধান অতিথি থাকার কথা ছিলো। কিন্তু দলীয় অর্ন্তকোন্দলের কারণে সর্বশেষ সভাটি বাতিল করা হয়েছে। আর এ সভা বাতিলের জন্য সরাসরি উপজেলা বিএনপি’র বর্তমান কমিটির আহবায়ক সৈয়দ ইসমাইল নিজামী এবং তার সঙ্গে থাকা আহবায়ক কমিটির সদস্য লোকমান এবং স্বপনকে দায়ী করা হচ্ছে।

সূত্রটি আরও জানায়- গত ১০ সেপ্টেম্বর জেলা বিএনপি হঠাৎ করে একটি পত্র প্রেরণের মাধ্যমে উপজেলা বিএনপি’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে উপজেলা নেতৃবৃন্দের কারও মতামত না নিয়ে ২১সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করে। কিন্তু ২১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটির অর্ন্তভুক্ত ১০জন সদস্য এ কমিটিকে অস্বীকার করে জেলা বিএনপি বরাবরে গত ১৬ সেপ্টেম্বর পদত্যাগ পত্র প্রেরণ করে। বর্তমানে ২১ সদস্যর মধ্যে ১১জন নিয়ে নামে মাত্র বিএনপি অস্তিত্ব ঠিকিয়ে রেখেছে বলে সূত্রটি জানায়।

এ বিষয়ে কাপ্তাই উপজেলার বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন জানান- সামনে জাতীয় নির্বাচন। নেতা-কর্মীরা অনেক আশা নিয়ে দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে একটি নির্বাচনী সভার আয়োজন করেছে। আর এতে জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক দীপেন তালুকদার দীপু প্রধান অতিথি থাকার কথা ছিলো। কিন্তু একটি স্বার্থন্বেষী মহল ষড়যন্ত্র করে সভাটি বন্ধ করে দেয়। এ ঘটনার পর দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ এবং হতাশা ব্যক্ত করেছেন বলে বিএনপি’র এ নেতা জানান।

ঘটনায় অভিযোগের তীর যার দিকে এবার সেই উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক ও জেলা বিএনপি’র উপদেষ্টা সৈয়দ ইসমাইল নিজামী জানান- আসতাকফিরুল্লাহ, তওবা… তওবা। এ ধরণের কথা ভিত্তিহীন, বানোয়াট। আমি কেন দলীয় সভা বাতিল করবো ? এটা তো জেলা বিএনপি’র সভা ছিলো। চারদিকে সরকারের পক্ষ থেকে যে ভাবে ধর-পাকর চলছে তা থেকে দলীয় নেতা-কর্মীকে রক্ষা করতে জেলা বিএনপি এ সিন্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক দীপেন তালুকদার দীপু জানান- ব্যস্ততার কারণে এ সভা করা হয়নি। বৃহস্পতিবার (১২ডিসেম্বর) সকালে জেলা বিএনপি অফিসে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে।