॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

নিজেকে ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেডিক ফ্রন্ট ইউপিডিএর এর নানিয়ারচর সার্কেলের বিচার ও সাংগঠনিক পরিচালক দাবী করে আনন্দ চাকমা ওরফে পরিচিতি নামে এক মধ্য বয়সি যুবক প্রেস কনফারেন্স করেছে খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবে। অস্ত্রের পথ ছেড়ে নিজ ও তার পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে প্রাঁণঘাতি সংঘাত পথ ছেড়ে শন্তির পথে স্বাভাবিক জীবনে ফিরার কথা সাংবাদিকদের কাছে জানান তিনি।

বুধবার (৫নভেম্বর) রাতে একটি বিদেশী পিস্তল ও ৩ রাউন্ড গুলিসহ সেনাবাহিনী কাছে আতœসমর্পন করেন তিনি। সেনাবাহিনীর মহালছড়ি জোনে এসে অস্ত্র সমর্পন করার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি করা হলে তিনি জানান, অনেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চায় কিন্তু ইউপিডিএফ এর ভয়ে আতœসমর্পনের সাহস করছেন না তারা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাব কনফারেন্স রুমে তিনি এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় পাহাড়ে চলমান সংঘাতে জীবনের নিরাপত্তা না থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি ৩৬ বছর ধরে জগঙ্গে জীবন কাটানোর দূ-সহ জীবনের কথা জানান। খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার বাসিন্দা আনন্দ চাকমা প্রায় ৩৬ বছর ধরে গেরিলা জীবন কাটচ্ছেন। গত ৪ বছর ধরে তিনি ইউপিডিএফ এর সঙ্গে জড়িত বলে জানান।

এসময় তিনি আঞ্চলিক সংগঠনগুলো ৪ভাগে বিভক্ত হয়ে খুন,গুম,অপহরণ,চাঁদাবাজীতে ব্যস্ত উল্লেখ করে তিনি বিগত সময়ে হত্যাসহ নিজেদের নেতাকর্মীদের নানা ঘটনায় উদ্বেগের কথা প্রকাশ করেন।

সে সময় তিনি তার ছেলে-মেয়েদের নিরাপত্তার কথাও তুলে ধরেন। তাই বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সহযোগিতার কথা তুলে ধরেন। আনন্দ চাকমা ওরফে পরিচিতি প্রথমে মহালছড়ি জোন কমান্ডার এর কাছে অস্ত্র সমর্পন করে বিষয়টি খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন।