॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥

রাঙামাটিতে ইউএনডিপি’র সিএইচটিডিএফ’র কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন কানাডিয়ান প্রতিনিধি দল। সোমবার (৮অক্টোবর) সকালে প্রতিনিধি দলটি এ কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে দলটি ইউএনডিপি’র কার্যালয়ে এক জরুরী বৈঠকে মিলিত হয়।

বৈঠকে অংশ নেন-কানাডা হাই কমিশনার পেড্রা মুন মরিস, কানাডিয়ান উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা রাইফুল জান্নাত, কানাডা-বাংলাদেশ উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা ফারজানা সুলতানা, ইউএনডিপি’র প্রজেক্ট ম্যানেজার প্রসেন জিৎ চাকমা, প্রোগ্রাম অফিসার ঝুমু দেওয়ান, সংস্থাটির জেলা ম্যানেজার ঐশ্বর্য চাকমা, মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য নিরুপা দেওয়ান, ডিজিএফআই রাঙামাটি অঞ্চলের সহকারী পরিচালক কাউসার আহমেদ, রাঙামাটির প্রবীন সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, শাইনিং হিলের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ আলী, রাঙামাটিস্থ মনোঘর’র প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক অশোক কুমার চাকমা, জেলার সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ডা: পরেস খীসা এবং কাপ্তাই উপজেলার হেডম্যান প্রতিনিধি চায়ং চাকমা।

সূত্র মতে জানা গেছে, বৈঠকে দূর্গম পাহাড়ের প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়ন বিষয়সহ সার্বিক বিভিন্ন পরিস্থিতির বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

তবে বৈঠকের বিষয়টি জানতে সংস্থাটির প্রোগ্রাম অফিসার ঝুমু দেওয়ানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি সম্পর্কে জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি জানান, বৈঠকটির বিষয়বস্তু সম্পর্কে বলার কোন সুযোগ নেই।

এদিকে বৈঠক শেষে ওইদিন সকালে কানাডিয়ান হাইকমিশনারসহ দলটির কর্মকর্তারা রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করতে আসেন। এসময় জেলা প্রশাসক মামুন না থাকায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. নজরুল ইসলাম’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) উত্তম কুমার দাশ।

পরবর্তীতে ওইদিন দুপুরে আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা’র (সন্তু ) সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হয়। তবে সরকারের এ সংস্থাটির চেয়ারম্যানের সাথে কানাডিয়ান প্রতিনিধি দলের কি বিষয়ে আলোচনা হয়েছে তা জানা যায়নি।
এরপরই ইউএনডিপি কার্যালয়ে লংগদু উপজেলার স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক মধ্যস্থতা ফোরামের সাথে বৈঠকে মিলিত হয় কানাডিয়ান প্রতিনিধি দলটি। ওইদিন বিকেলে ইউএনডিপি’র সহযোগী মহিলা ওয়ের্ভাস গ্রুপের সাথে সাক্ষাত করেছেন দলটি।

প্রসঙ্গত: কানাডিয়ান হাইকমিশনার পেড্রা মুন মরিচের নেতৃত্বে দলটি আগামী চারদিন পার্বত্য চট্টগ্রামে অবস্থান করবেন। তবে কি বিয়য়ে তারা কার্যক্রম পরিচালনা করবেন তা সুস্পষ্ট ভাবে কেউ বলতে পারেনি কোন মহল।