“স্বপ্ন”

সুভাস চৌধুরী

এ কেমন স্বপ্ন আমার?
রাত ফুরালেই শেষ হয়।
বকুলের গাঁথা মালা
সাজানো বাগান
নিমিশেই হয় শেষ।

ভয় নাই, ওরে ভয় নাই
পারি আমি সব, বস্ত্র হরন করতে
ধৈর্য্যের বাঁধ ভাঙ্গিসনে আমার
ভেঙ্গে চুড়ে করবো সর্বনাশ।

ঠেকাতে পারবিনে কেউ
স্বপ্ন আমার বাস্তব হবে
সত্যি সত্যিই হবে
গা ঝেরে কোমড় দুলিয়ে নামতে হবে
এই আর কি।

এ জীবনে দেখেছি অনেক
হয় না এমন কিছু নেই আমার ডিকশেনারিতে
কুঁয়াতে চায় আরকি,বুঝিনি আমি?
বাংলাদেশ আমার বাংলাদেশ,
হায়রে আমার বাংলাদেশ দেশ।

মুক্তি যুদ্ধ দেখেছি,হারিয়েছি অনেক
হারাবার আর ভয় দেখাস্ নে আমায়
প্রতিবেশী দেশে মাটি চাপা দিয়েছি দু’ভাইকে
দেশে মরেছে দু’জন,
বেচে আছি কিভাবে দেখ্?

হারামীর দল,ঘুষকোর,রাজাকার
চেদা করে দিবে বুক তোদের
সুযোগ খুজ্ছিস্?
হুঁ হুঁ হুঁ,সময় নেই তোদের বোল পাল্টাবার
সারেন্ডার কর্ শালা,লকাপে ঢুকাই, তবে রে।

ভেবেছিস্ কি, পারিনি বুঝতে?
ভুলে যা, সেই সব দিন তোদের
করেছিস্ যা,যেই সব,
ঘর পুড়েছিস্,ভিটে ছাড়া করেছিস্।
আমার বোনের ইজ্জত লুটেছিস্
কুলংগার,রাজাকার,বেঈইমান
হানাদার বাহিনীর পা ছটা কুত্তা।

নষ্ট করতে চাইছিস্ আমায়?
হেঁ হেঁ হেঁ,চিন্তাও করতে পারবিনা
আমার দৌড় কতটুক,আমি এখনই পারি
দুমড়ে মুচড়ে সকল গ্লানী মুচে দিয়ে
স্বাধীন বাংলা তৈরী করতে।