“৭১”

সুভাস চৌধুরী

আমি ৭১ এর রাজাকার দেখেছি
আলবদর দেখেছি
দেখেছি আল শামস।

দেখেছি পাঠান বিহারীদের তান্ডব
ঘর পুড়িয়েছে,ভিটে ছাড়া করেছে
নিতে দেয়নি এতটুকু কান্ডব।

দেখেছি রাজাকারদের শুকনো খড় নিয়ে
আগুন দিয়ে বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দিয়ে
ভারতে পাঠাতে শরণার্তী করে।

দেখেছি নয় দিন নয় রাত চলার পথে
রাজাকারদের লুটতরাজ
ইজ্জত হানী করতে।

বট তলায় মায়ের আচল বিছিয়ে
লিকলিকে ঘাসের উপর শুইয়ে রেখে
মাড়ে ভাতে লবন দিয়ে খাওয়াতে।

সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মানো ভাইয়েরা বলতো
গায়ে শুড়শুড়ি লাগছে
কি সব খেতে দাও ফালতু সব।

দেখেছি আমি ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট
গোলা বারুদ শেষে
অবসাদ মূহুর্ত।

দেখেছি আমি রামগড় বর্ডারের বাংকারে
মুহুর মুহ বোমপিং এর শব্দ করে
পাক্ সেনাদের চীৎকার।

দেখেছি আমি ফেনী নদীতে
তরুণীদের কোমড়ে রশি বেধেঁ
ব্রা আর পেটিকোট পড়ে নাইতে নামার শব্দ।

দেখেছি আমি ইন্দিরার আশ্রয়ে
মুক্তি বাহিনীকে ইয়থ ক্যাম্পে
প্রশিক্ষিত করে দেশে পাঠাতে।

দেখেছি ভারতের বুকে রেখে আসা
দু’ভাইয়ের কবর আর
মৃত্যু যন্ত্রনা।

দেখেছি আমি স্বাধীনতার লাল সূর্য্য
মায়ের বুকে ফিরে আসা
মুক্তি বাহিনীর স্রোত।

দেখেছি আমি শত জনতার কন্ঠে
ধ্বনিত হতে
জয় বাংলার শ্লোগান।

দেখেছি স্বাধীন সার্বভৌম স্বাধীন রাস্ট্র
জয় করে বাংলার বুকে
জয় বাংলার পতাকা।