জেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

খাগড়াছড়ি: করোনার চির বিদায় দিতে হলে সচেতনতার জরুরী মন্তব্য করে পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল বলেন, সামাজিক দূরত্ব ও সরকারি নির্দেশনা মেনে চললেই খাগড়াছড়িবাসী করোনা মুক্ত থাকবে। মঙ্গলবার খাগড়াছড়ি পৌর এলাকার বটতলী,রুখই চৌধুরীপাড়াও দক্ষিণ বাজার এলাকায় দূর্গত মানুষদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী উপহার পৌঁছে দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ব্যাক্তিগত অর্থায়নে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল খাগড়াছড়ি পৌর এলাকার প্রায় ৩ হাজার মানুষের মধ্যে এ খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার কাজে নেমেছেন। প্রতিদিন ধারাবাহিক ভাবে পৌর এলাকার গৃহবন্দি ও কর্মহীন, অসহায়দের মধ্যে তিনি এসব ত্রান পৌঁছে দিচ্ছেন।

মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি সদরের দক্ষিণ বাজার এলাকায় শিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৮নং ওয়ার্ডে ৯ম ধাপে ৪শ ৩০ পরিবার, ১০ম ধাপে ৯নং ওয়ার্ডে রুখই চৌধুরী পাড়ায় ২১০ পরিবার ও ১১তম ধাপে বটতলী স্কুল মাঠে ১৯০ পরিবারসহ মোট ৮শ ৩০ পরিবারের মাঝে তিনি তার খাদ্য উপহার তুলে দেন।

এ সময় তিনি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক ব্যবহার করার অনুরোধ জানান। সামাজিক দুরত্বে জনপ্রতি ৫ কেজি চাল,১ কেজি আলু,আধা কেজি তেল, আধা কেজি ডাল, আধা কেজি লবণ ও আধা কেজি পেঁয়াজ তুলে দেওয়া হয়।ধাপে ধাপে পৌর এলাকার বাকী এলাকাগুলোতেও এসব ত্রান বিতরণ করা হবে বলে নিশ্চিত করেন সংশ্লিষ্টরা।

এ সময় খাগড়াছড়ি পৌর আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক,খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি টিকো চাকমা,ওয়ার্ড কমিশনার মাসুদুল হক,পরিমল দেবনাথ,পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল করিমসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

পার্থ ত্রিপুরা জানান, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুসারে খাগড়াছড়ির এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার পরামর্শে ব্যাক্তিগত অর্থে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। মহামারি করোনার প্রভাবে পৌর এলাকার কর্মহীন,অসহায়,গরীব,দুস্থ মানুষের কষ্টে সকলের সাধ্যমত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান তিনি।