উপজেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

কাপ্তাই: করোনা জয় করে আবার সুস্থ জীবনে ফিরে গেলো রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার বড়ইছড়ি এলাকার বাসিন্দা পারভেজ মাহামুদ। পারভেজ রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ধামাইরহাট একটি গ্রামীন ব্যংকে কর্মরত ছিলো।

গত ২ জুন পারভেজের শরীরে জ্বর, সর্দি থাকায় তার চাচার পরামর্শে সন্দেহবশত করোনা পরীক্ষা করায় এবং গত ৮ই জুন কাপ্তাই স্বাস্থ্য বিভাগ পারভেজের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে নিশ্চিত করে।

করোনা পজিটিভ আসার পর তার বাড়ি লগডাউন করা হয় এবং সে হোম আইসোলশনে চিকিৎসা নেয়। গত ১৬ জুন পুনরায় তার করোনা সেম্পল সংগ্রহ ২য় পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামে পাঠানো হয়। রোববার (২১ জুন) তার ২য় করোনা ফলাফল নেগেটিভ এসেছে এবং সেই সাথে তাকে সুস্থ ঘোষনা করেছে কাপ্তাই স্বাস্থ্য বিভাগ।

কিভাবে করোনাকে জয় করলো পারভেজ সেই বিষয়ে তার কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানাই, করোনাকে জয় করার প্রধান মাধ্যম হলো নিজের প্রতি দৃঢ় মনোবল ও আত্মবিশ্বাস রাখা, যা দ্বারা একজন করোনা রোগী অতিদ্রুত সুস্থ হয়ে উঠে।

এছাড়াও সে জানাই, চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সে প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে শরীর ও শ্বাস-প্রশ্বাস চর্চা করতো এবং সেইসাথে প্রতিদিন ডাক্তারের পরামর্শ অনুয়ায়ী ঔষধ ও গরম পানি সেবন করতো। করোনা প্রতিরোধে যেইসব ফল, সবজি, খাদ্যদ্রব্য খাওয়া দরকার পারভেজ সেইসব খাদ্য প্রতিনিয়ত খেতো। প্রতিনিয়ত আল্লাহর ইবাদত ও তাঁকে স্মরণ করতো। এইভাবে দীর্ঘ ১৫ দিনের অধিক সময়ে সঠিক নিয়ম-কানুন মেনে চলায় করোনাকে জয় করলো পারভেজ।

করোনাজয়ী গ্রামীন ব্যংকের এই কর্মকর্তা পারভেজ কৃতজ্ঞতার সহিত স্মরণ করেন কাপ্তাই ফোরাম এর এডমিন এ আর লিমন, বন্ধু রুবেল হোসেন, বড় ভাই রাজু, তার ছোট চাচা সহ পরিবারের সকলের প্রতি যারা তাকে সবসময় করোনা জয় করার জন্য সাহস ও সহযোগিতা করেছিলো।

সর্বোপরি করোনাজয়ী পারভেজ সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, করোনা আক্রান্ত ব্যাক্তিদের কেউ যেন হেয় প্রতিপন্ন না করে বরং তাদের সবসময় সাহস ও সহযোগিতা প্রদান করে এবং সেই সাথে সকলকে করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে যথাযথ নিয়ম কানুন মেনে চলার জন্য আহবান জানান।