॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় মিতালী চাকমা (৯) নামের এক ছাত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তারই গৃহশিক্ষক। গৃহশিক্ষকের নাম অংবাচিং মারমা (৩৬)। রোববার (৩ফেব্রুয়ারী) দুপরে উপজেলার রাইখালী ইউনিয়নে পূর্বকোদালা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্রী মিতালী উপজেলার চন্দ্রঘোনা থানার অধীন রাইখালী ইউনিয়নের পূর্বকোদালা গ্রামের বাসিন্দা সাথুই অং মারমার মেয়ে। আটককৃত গৃহশিক্ষক অংবাচিং একই ইউনিয়নের বড়খোলা পাড়ার বাসিন্দা উসাখৈই মারমার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে- অংবাচিং পেশায় একজন গৃহ শিক্ষক। তিনি উক্ত পাড়ায় একটি ভাড়া বাসাতে প্রাইভেট পড়ান। শিক্ষক অংবাচিং খালি ঘরে উক্ত ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে ছাত্রী আত্মচিৎকার করলে তাকে গলাটিপে হত্যা করে ওই শিক্ষক। এরপর ওই ছাত্রীর মরাদেহ বস্তাবন্দি করে পাশ্ববর্তী এলাকার একটি জঙ্গলে ফেলে দেওয়ার সময় স্থানীয়রা ওই শিক্ষককে হাতেনাতে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে।

চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান- আটক শিক্ষকের বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হবে এবং নিহত ছাত্রীর মরাদেহটি ময়না তদন্তের জন্য রাঙামাটি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।