॥ কাপ্তাই প্রতিনিধি ॥

‘সাংগ্রাঁইং মা ঞি ঞি ঞা ঞা..রি, কাজাই গাই পামে ও ঞিং ওকো রো  এম্রে ম্রিই রোগাই লাগাই চুও প্য গাই মেলে’ মারমা এ গানের অর্থ দাঁড়ায়- ‘এসো এসো সাংগ্রাঁইতে এক সাথে মিলে মিশে জলকেলিতে আনন্দ করি’।

রোববার (১৫এপ্রিল) সকালে রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় সাংগ্রাই জল উৎসব উৎযাপন কমিটির আয়োজনে অনুষ্ঠিত জলকেলিতে মারমা সম্প্রদায়ের যুবক-যুবতী এবং শিশু কিশোররা তাদের ঐতিহ্যর পোশাক পড়ে মারমা গানের মাধ্যমে পুরাতন বছরকে বিদায় এবং নতুন বছরকে বরণ করে নেয়।

এছাড়া এ উৎসবের অন্যতম বৈশিষ্ট হলো- মার্মা তরুণ-তরুণীরা এক অপররের প্রতি পানি ছিটিয়ে পুরাতন বছরের সকল গ্লানি, দু:খ, কষ্ট ভুলে বরণ করে নেয় নতুন বছরকে।

ওইদিন সকালে উপজেলার চিংম্রং এলাকায় অনুষ্ঠিত এ উৎসবের উদ্বোধন করেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মংনুচিং মারমা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য থোয়াইচিংমং মারমা।
জলকেলি উৎসব উদযাপন কমিটির আহবায়ক খ্যাইসা অং মারমার সভাপতিত্বে গেষ্ট অর্নার ছিলেন, কাপ্তাই উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান অংসুইছাইন চৌধুরী।

এছাড়া কাপ্তাই ১৯বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল শহীদুল ইসলামসহ উপজেলার উচ্চ পদস্থ অন্যন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ওইদিন জলকেলি উৎসব ছাড়াও মারমা তরণ-তরুণীরা মারমা ভাষায় নাচ-গানে আগত অতিথিদের মুগ্ধ করেন।

এদিকে উৎসবের উদ্বোধনের আগে ওই এলাকায় সাংগ্রাঁইয়ের আনন্দ শোভা যাত্রা বের করে। সাংগ্রাই উৎসবকে কেন্দ্র করে গত ১৩এপ্রিল থেকে ওই এলাকায় মেলার পসরা বসেছে। রোববার জলকেলি উৎসবের মাধ্যমে এ মেলার পরিসমাপ্তি ঘটবে।