॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

হরতাল আছে হরতাল নেই এমন বিভ্রান্তির মধ্যদিয়ে খাগড়াছড়িতে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের ডাকে ৪৮ ঘন্টা হরতালের প্রথমদিন খাগড়াছড়িতে ঢিলেঢালাভাবে পালিত হেেয়ছে। রোববার ( ৬মে) বিকেলে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের একাংশের ডাকে ৭২ ঘন্টার হরতাল প্রত্যাহার হলে এ বিভ্রান্তি দেখা দেয়।

৪৮ ঘন্টার হরতালের প্রথমদিন সোমবার (৭মে) সকালে জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষপ্তভাবে গাড়ী ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। সকালের দিকে পিকেটারদের তৎপরতার কারণে শহরে যানবাহন চলাচল কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে যানবাহন চলাচল বেড়েছে।

সকাল ১০টার পর থেকে খাগড়াছড়ি শহরে রিক্সা অটো রিক্সা ও মটর সাইকেল চলাচল করতে দেখা গেছে। হরতাল সমর্থকরা সকালে জেলা সদরের কলেজ রোড এলাকায় একটি ট্রাক ও মাহেন্দ্র গাড়ি ভাংচুর করেছে। অন্যদিকে রামগড়ের যৌথখামার এলাকায় একটি ট্রাক ভাংচুরের খবর পাওয়া গেছে।

ট্রাক চালক জানান, পাহাড়ের উপর থেকে কয়েক যুবক নেমে ট্রাকের কাচ ভাংচুর করে। দোকানপাটও খুলতে শুরু করেছে। তবে, দুরপাল্লার যানবাহন ছেড়ে যায়নি।

এদিকে মাইক্রোবাস চালক মো: সজিব হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবীতে খাগড়াছড়ি রেন্ট এ কার চালক সমিতি আজ দিনব্যাপি কর্মবিরতি পালন করছে।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন টিটু জানান, রোববার বাঙ্গালী সংগঠনের পক্ষ থেকে হরতাল প্রত্যাহারের ঘোষনার পর পুনরায় বিভ্রান্তির কারণে গাড়ি চলাচল কম করছে। তবে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি জানান, ভাংচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪জনকে আটক করা হয়েছে। একই দাবীতে রোববার বৃহত্তর বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য অধিকার ফোরাম ৭২ ঘন্টার হরতালের প্রথমদিন পালন শেষে সন্ধ্যা
৬টায় প্রত্যাহার করে নেয়।

উল্লেখ্য যে, মাইক্রোবাস চালক মো: সজিব হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার এবং অপহৃত তিন বাঙ্গালীকে উদ্ধার ও ইউপিডিএফসহ আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর নিষিদ্ধ করার দাবীতে পার্বত্য নাগরিক পরিষদ ও পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ এই হরতালের ডাক দেয়।