॥ সিনিয়র রিপোর্টার ॥

জনগনের সংস্কৃতিকে মুক্ত করে আনার প্রয়াসই আমাদের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের মূল কথা।গণসংস্কৃতি বুঝতে গেলে গণ শব্দটি বুঝতে হবে। গণমানুষকে তাদের সংস্কৃতি ভুলিয়ে দেয়া হয়। কারণ, মার্কসের কথায়, সমাজের উচ্চশ্রেনীতে যা থাকে তাদের সংস্কৃতিকে নিজের সংস্কৃতি বলে মনে করানো হয় গণ মানুষকে।

শুক্রবার (৫অক্টোবর) সকালে রাঙামাটিতে উদীচীর সূবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে উদীচী চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির উদ্যেগে আয়োজিত এবং উদীচী রাঙামাটি জেলা সংসদের ব্যবস্থাপনায় “গণসংস্কৃতি ও উদীচী” বিষয়ক সেমিনারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সভাপতি শহীদ জায়া বেগম মুশতারী শফি এসব কথা বলেন।

উদীচী রাঙামাটি জেলা সংসদের সভাপতি অমলেন্দু হাওলাদারের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক বিজয় ধর এর সঞ্চালনায় সেমিনারে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি ডা: চন্দন দাশ,কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. মোল্লা হাবিবুর রাসুল মামুন, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও খেলাঘর আসর রাঙামাটির সভাপতি সুনীল কান্তি দে,উদীচী বান্দরবান জেলা শাখার সভাপতি ডা: মং উষাথোয়াই, উদীচী জেলা সংসদের সাবেক সভাপতি অনুপম বড়–য়া শংকর। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি ডা: চন্দন দাশ।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, আমাদের হাসন রাজা বা শাহ আব্দুল করিম- তাঁেদর দর্শন-চিন্তা আমাদের গণসংস্কৃতির ভিত্তি।সা¤্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে,ধনতন্ত্রে বিরুদ্ধে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে কী শক্তিশালী কথা সকলের বোধগম্য করে লিখেছেন, যা ভদ্রলোকের কবি-সাহিত্যিকরা পারেন না। বক্তারা বলেন, আমরা ভুলে যাই , সংস্কৃতি মানেই সংস্কার। সংস্কার থেকে যে কৃত হয় তা-ই সংস্কৃত। সংস্কৃতরই বিশেষ্য হচ্ছে সংস্কৃতি।

বক্তারা আরো বলেন, আমাদের সংস্কৃতির ক্ষেত্রে উদীচী কিছু ভূমিকা পালন করতে পারছে। গণসংস্কৃতি মুল কথাগুলো উদীচী তবুও কিছু বলে। আর কেউ তো বলে না। আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড মধ্যবিত্ত গন্ডির মধ্যে আবদ্ধ হয়ে গেছে। প্রান্তিক মানুষের কাছে আমরা যেতে পারিনা।জাতি সংস্কার করতে হলে আগে নিজেদের সংস্কার করতে হবে।

সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সাধারন সম্পাদক শীলা দাশগুপ্তা, ্এ্যাড, বিধান বিশ্বাস, নোয়াখালী উদীচীর সদস্য এইচ এম মান্নান মুন্না,উদীচী রাঙামাটির সহ-সভাপতি এম জিসান বখতেয়ার,সুজন বড়–য়া,কাপ্তাই সংসদের সভাপতি মংসাপ্রু মারমা,রবি চৌধুরী।

সেমিনারের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীত ও উদীচী সঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী চট্টগ্রাম বিভাগের বন্ধুরা।