॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ বলেন, সড়ক দূর্ঘটনার অন্যতম কারণ হলো ট্রাফিক আইন না মানা। অপেশাদারিত্ব চালকগণ ট্রাফিক আইন না জেনে গাড়ি চালিয়ে দূর্ঘটনার কবলে পড়েন। এ কারণে সাধারণ মানুষ হতাহত হয়।

রোববার (৫আগষ্ট) দুপুর ১২টার দিকে বনরূপা এলাকায় রাঙামাটিতে ট্রাফিক সপ্তাহের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিসি মামুন আরও বলেন, চালকগণ যদি গাড়ি চালনা প্রশিক্ষণ ভাল ভাবে নিয়ে ট্রাফিক আইন মেনে গাড়ি চালায় তাহলে দূর্ঘটনার শিকার হতে হবে না। এজন্য সকলকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

ডিসি মামুন পরিবহন মালিক সমিতির নেতাদের আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনারা অপেশাদার চালকদের হাতে আপনাদের গাড়ি তুলে দিবেন না। এতে আপনার গাড়ি যেমন ক্ষতি হবে তেমনি সাধারণ মানুষের মৃত্যুর মিছিলের সংখ্যা বাড়বে।

বিআরটিএ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য ডিসি বলেন, আপনারা অনৈতিক কার্যক্রম থেকে সরে আসুন এবং প্রশিক্ষণ নিয়ে চালক পরীক্ষায় যারা প্রকৃত পক্ষে উত্তীর্ণ হবে তাদের লাইসেন্স দিবেন। আজকে বিআরটিএ’র কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনৈতিক কর্মকান্ডের কারণে অপেশাদর চালকরা চালকের লাইসেন্স পেয়ে যাচ্ছে। যার কারণে দিনদিন সড়ক দূর্ঘটনা বাড়ছে বলে ডিসি যোগ করেন।

জেলা পুলিশের বাস্তবায়নে, জেলা প্রশাসন, বিআরটিএ, রোভার স্কাউটস এবং পরিবহন মালিক সমিতির সার্বিক সহযোগিতায় উক্ত অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার আলমগীর কবিরের সভাপতিত্বে এসময় পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, রাঙামাটি বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঈনুদ্দীন সেলিম, ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল সালাম, অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি পরেশ মজুমদারসহ ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।