॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানের থানচি উপজেলায় ৪র্থ শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী শিক্ষকের লালসার শিকার হয়েছে। অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের নাম সাইন থোয়াই মারমা। তিনি ওই উপজেলার ক্রংক্ষ্যং পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং ওই উপজেলার চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমার ভাগিনা।
রোববার (২৭ মে) ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এবং চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করে।

মামলার নথি পত্রের তথ্য মতে জানা গেছে, ছাত্রিটি শিক্ষক সাইন থোয়াই’র কাছে প্রাইভেট পড়তো। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে শিক্ষক ওই ছাত্রীকে একাধিক ধর্ষণ করে। পরবর্তী ওই ছাত্রী অন্ত:স্বত্তা হয়ে পড়লে ছাত্রীর বাবা প্রাথমিক ভাবে শিক্ষককের মামা ও চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমাকে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করেন।

চেয়ারম্যান ভিকটিমের বাবার অভিযোগের পর কাল ক্ষেপন করায় বাধ্য হয়ে থানায় ওই শিক্ষককে প্রধান আসামী এবং প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা জানান, বিষয়টি নিয়ে সোমবার প্রথাগত সামাজিক বিচারের আয়োজন করা হয়েছিল। তবে থানায় মামলার বিষয়টি সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন।