জেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, শিক্ষার পাশপাশি কারিগরি শিক্ষা অপরিহার্য্য। কারন উন্নত রাষ্ট্রের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে সব বিষয়ে পারদর্শী হতে হবে।

শুধু পড়া-লেখা করে শিক্ষা গ্রহণ করলেই হবে না। দক্ষতা অর্জন ও দেশ প্রেম বুকে ধারণ করে স্বাভলম্বী হতে হলে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শুক্রবার দুুপুরে খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়ার ছোটবাড়ীপাড়া,জোরমরম হেডম্যানপাড়াসহ পাশর্^বর্তী এলাকায় বিদ্যুতায়নের শুভ উদ্বোধন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এতে তিনি আরো, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়তে হলে সোনার মানুষ তৈরি হতে হবে। সরকারের নানা উন্নয়নের ফিরিস্থি তুলে ধরে চলমান উন্নয়নের জন্য বার বার শেখ হাসিনা সরকারকে প্রয়োজন বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

এছাড়াও পরাজিত শক্তি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে দিতে চাইনি বলেই বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবারে হত্যার চেষ্টার কথা তুলে ধরে সকল ক্ষেত্রে দেশের মানুষের আন্তরিকতায় বর্তমানে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে সরকার গৃহিত নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন তিনি

অনুষ্ঠানে ভাইবোনছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পরিমল ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাঙ্গামাটি সার্কেলের পওস’র তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো: কামাল উদ্দিন আহমেদ,৩ পার্বত্য জেলার বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবহার উন্নয়ন প্রকল্পের রাঙ্গামাটির বিউবোর প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী উজ্জ্বল বড়–য়া,খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য এড. আশুতোষ চাকমা,খোকনেশ^র ত্রিপুরাসহ অন্যানরা এতে উপস্থিত ছিলেন।

পরে প্রধান অতিথি খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ১৫টি সেলাই মেশিন ও ১০টি সোলার প্যানেল তুলে দেন।

এদিকে খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়ার ছোটবাড়ীপাড়া,জোরমরম হেডম্যানপাড়াসহ ৪ এলাকায় বিদ্যুতায়নে প্রকল্পে প্রায় আড়াই কোটি টাকা ব্যায়ের প্রাথমিক ভাবে জানালেও রাঙ্গামাটি বিউবো তিন পার্বত্য জেলায় বিদ্যুত বিতরণ ব্যবহার উন্নয়ন প্রকল্পের সহকারী প্রকৌশলী যত্ম মানিক চাকমা জানালেও সঠিক কোন তথ্য দিতে পারেননী তিনি।

এছাড়াও বিদ্যুত বিভাগের বিলে নানা জনভোগান্তি ও সমস্যার কথা স্বীকার করে প্রিপেইড মিটার ব্যবহারের গুরুত্বারোপ করেন রাঙ্গামাটি সার্কেলের পওস’র তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো: কামাল উদ্দিন আহমেদ।