আল-মামুন, জেলা প্রতিনিধি। হিলরিপোর্ট

খাগড়াছড়ি: পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কে›ন্দ্রে বেড়েছে প্রসূতি মায়েদের সেবা ও নরমাল ডেলিভারী। প্রশিক্ষিত ও দক্ষ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শীকারাই নরমাল ডেলিভারীর মাধ্যমে এই সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। ফলে সাধারণ মানুষের মনে ফিরেছে আশার আলো।

এমনি একটি চিত্র দেখা যায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরের গোলাবাড়ী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে। সেখানে দেখা যায় আশপাশের ইউনিয়নের প্রসূতি মায়ের সেবা নিতে আসতে। সোমবার এ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে প্রসব হয় দুটি নবজাতক কণ্যা সন্তান।

গোলাবাড়ী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের পরিবার কল্যাণ পরিদর্শীকা শাহনাজ সুলতানা এই দুই ফুটফুটে নবজাতক প্রসব করান। ফলে প্রসূতি মায়ের নিয়ে দুচিন্তা কিছুটা হলেও লাগব হয়েছে। খাগড়াছড়ি জেলা সদরের আনন্দনগর ও মহালছড়ি উপজেলার পাশ^বর্তী এলাকা থেকে পরিদর্শীকা শাহনাজ সুলতানার আন্তরিকতা ও ভালোবাসায় প্রসূতি মায়েরা ছুটে আসনে বলে জানান রোগিরা।

এ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে লোকবল হিসেবে রয়েছে, শহীদ উল্ল্যাহ নামের ১ জন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, শাহনাজ সুলতানা ও প্রতীভা চাকমা নামের ২ জন পরিবার কল্যাণ পরিদর্শীকা ২ জন, ১ জন ফার্মাসিষ্ট, ১ জন অফিস সহায়ক ও ১জন আয়া। ৬ জনের লোকবল দিয়ে এই প্রতিষ্ঠান চলছেও স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে সন্তুষ্ট স্থানীয় এলাকাবাসী।

এলাকাবাসীর অভিমত পরিবার কল্যাণ পরিদর্শীকা শাহনাজ সুলতানা আন্তরিক হলেই গোলাবাড়ি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র একটি হাসপাতালে পরিণত হয়ে উঠবে। বাড়ছে প্রসূতি মায়েদের চিকিৎসা সেবাও।

সেখানে নানা সমস্যায় জর্জরিত স্বাস্থ্যখাতের বিভিন্ন ইউনিয়নের চিকিৎসা সেবা। অপ্রতুল এই অবস্থায় গোলাবাড়ী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের এ ধরনের সেবায় আশার আলো দেখছে স্থানীয়রা।