জেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

খাগড়াছড়ি: করোনা ভাইরাস নামক অদৃশ্য মহামারীর সাথে যুদ্ধ করছে দেশের মানুষ। করোনার সংক্রমন ঠেকাতে দেশব্যাপী চলছে সাধারণ ছুটি আর লকডাউন। আর এ পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে চরম বিপাকে হাঁসফাঁস অবস্থা পাহাড়ের খেটে খাওয়া প্রান্তিক জনগোষ্ঠী।

পাহাড়ী জেলা খাগড়াছড়ির কর্মহীন মানুষের মুখে খাদ্য তুলে দিতে কাঁধে অস্ত্র নিয়েই খাদ্য সহায়তা নিয়ে বাড়ি বাড়ি ছুটছে সেনা জওয়ানরা। খাদ্য সহায়তার অংশ হিসেবে খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশন চট্টগ্রাম অঞ্চলের জিওসি’র পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে মহালছড়ি জোন।

সোমবার (২৭ এপ্রিল ২০) দুপুর থেকে ত্রান পৌঁছে দেওয়া কার্যক্রম শুরু করা হয়। মহালছড়ি উপজেলার নুনছড়ি, হেডম্যান পাড়া, দুর্গম বাহাদুর পাড়া ও পাঁচ একর এলাকায় গৃহবন্দি, কর্মহীন ও দু:স্থ-অসহায় মানুষের বাডি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মেহেদী হাসান এর নেতৃত্বে সেনা জওয়ানরা।

খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ত্রাণ বিতরণ কালে জনপ্রতি চাল-১০ কেজি,ডাল-২ কেজি, আটা – ২ কেজি, তেল-১ কেজি, লবণ-১ কেজি, আলু-৫ কেজি, পিয়াজ ০১ কেজি,উইল সাবান -১প্যাকেট এবং লাক্স সাবান-১ প্যাকেট তুলে দেওয়া হয়।

বিতরন কালে ক্যাপ্টেন কাজী ইনতিসার সালিম বলেন, করোনা দূর্যোগে সাধারন মানুষ যেন ঠিকমতো খেতে পারেন সেজন্য সেনা জওয়ানরা প্রত্যন্ত অঞ্চলে কর্মহীন, নিম্নআয়ের দু:স্থ ও অসহায় মানুষ খুঁজে বের করেন এবং তাদের বাসা পর্যন্ত খাদ্য সামগ্রী কাঁধে বহন করে তা তাদের হাতে পৌঁছানো নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে নিজে সুস্থ থাকার পাশাপাশি পরিবার ও সমাজকে নিরাপদ রাখা সম্ভব। সবাইকে সরকারের দেয়া স্বাস্থ্য সর্তকতা মেনে চলার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, যে কোন পরিস্থিতিতে পার্বত্য চট্টগ্রামের দূর্গম অঞ্চলের গরীব দু:স্থ মানুষদের সেনাবাহিনী অতীতের মতো আগামীতেও পাশে থাকবেন।

লকডাউনে থাকা পাহাড়ী জনগণের খাদ্যাভাব দূর করতে মহালছরি সেনা জোন নিয়মিত অসহায় ও দুস্থ জনসাধারণের মাঝে এসব ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছে। পাশাপাশি করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। দূর্গম এলাকার অসহায় পরিবারগুলোর মধ্যে স্বস্থি ফিরিয়ে আনতে এ ধরণের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।