জেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

বান্দরবান: বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ি সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. আদহাম (২৩) নামে এক রোহিঙ্গা ইয়াবাকারবারি নিহত হয়েছেন। তিনি তুমব্রু কোনাপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের আবুল হাশেমের ছেলে।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ ও ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (২১ অক্টোবর) ভোরে সীমান্তের ৩৫ নম্বর পিলারের কাছে এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি সূত্রে জানা যায়, বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমঘুম ইউনিয়নের তুমব্রু বাইশফাঁড়ি সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমার থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা আসার খবর পেয়ে বিজিবি সেখানে অবস্থান নেয়। এসময় মিয়ানমার থেকে ১০/১২ জনের একটি দল আসতে দেখে বিজিবি তাদের চ্যালেঞ্জ করলে ইয়াবাকারবারিরা টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করলে আত্মরক্ষার্থে টহল দলের সদস্যরাও পাল্টা গুলি করে। এসময় হামলাকারীরা পাহাড়ি জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের ভেতরে পালিয়ে যায়।

পরে টহল দল ঘটনাস্থল থেকে মো. আদহাম (২৩) নামে এক রোহিঙ্গাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলার উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে বিজিবির সদস্যরা দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ ও ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ টাকা।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি/তদন্ত) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন সিকদার জানান, আমরা ঘটনা সর্ম্পকে জেনেছি এবং নিহত রোহিঙ্গা মো. আদহামের মরদেহ উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ রাখা হয়েছে। পরর্বতী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।