॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপ-নির্বাচনের আগের দিন ছায়াধন চাকমা (৪৫) নামের এক ব্যক্তিকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৪জুলাই) সকালের দিকে নানিয়ারচর বাজার থেকে এই ব্যক্তিকে অপরহরণ করা হয় বলে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুফ সমর্থিত নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক জ্যোতি লাল চাকমা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান।

অপহৃত ছায়াধন চাকমা উপজেলার সাপমারা গ্রামের তুষ্টমনি চাকমার ছেলে।

সংগঠনটির সদস্য সচিব পরান ধন চাকমা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জ্যোতি লালের বক্তব্যে বলা হয়- মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে নানিয়ারচর বাজারে চাল বিক্রি করার সময় ঝিমিত চাকমার নেতৃত্বে নব্য মুখোশ বাহিনী ( গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফ) ও সংস্কারপন্থী জেএসএস-এর (জেএসএস সংস্কার) ৪ জন সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে ছায়াধন চাকমাকে অপহরণ করে তাদের আস্তানা উপজেলার গুল্যাছড়ির দিকে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব পরান ধন চাকমা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং উপ-নির্বাচনকে ঘিরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতির মধ্যেও এ অপহরণের ঘটনায় তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

তিনি অবিলম্বে অপহৃত ছায়াধন চাকমাকে উদ্ধার করে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

তবে এ ঘটনার সাথে জড়িত নয় বলে জানান জেএসএস সংস্কার এবং গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফ বর্মা গ্রুপের সদস্যরা। সংগঠনগুলো জানান, নির্বাচনে আগে একটি স্বার্থনেষী মহল অরাজকতা পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে এ ধরণের ঘটনা ঘটাচ্ছে।

নানিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ জানান, এ ব্যাপারে কেউ কোন অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত ১৯জুলাই রাতে নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান প্রীতিময় চাকমাকে অপহরণ করে একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত। এ ঘটনার জন্য ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুফ জেএসএস সংস্কারকে দায়ী করে আসছে। কিন্তু জেএসএস সংস্কার এ ঘটনার সাথে জড়িত নয় বলে জানান।