॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে বিভিন্ন শপিং মহল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ায় স্থবির হয়ে উঠছে রাঙামাটি। জেলা প্রশাসনের পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে শহরের মুদি দোকান ও ওষুধের দোকান ছাড়া সব ধরনের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এছাড়া বুধবার শহরের প্রাণকেন্দ্র বনরূপার সাপ্তাহিক হাট- বাজার বন্ধ থাকায় এবং প্রশাসনের কড়া নজরধারী থাকায় ক্রেতা সমাগম ছিলো না।

এদিকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে, বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম নিয়ন্ত্রণে ও জনসাধারণকে সচেতন করার লক্ষ্যে মাঠে কাজ করছেন জেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ সমন্বয়ে গঠিত টিম ।

এই টিমগুলো সকাল থেকে শহরের পাথরঘাটা, পাবলিক হেলথ, কলেজে গেট, ভেদভেদী, আসামবস্তিসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করছেন। অভিযানের পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করছেন তাঁরা। এসময় দুইটি দোকানে পন্যের মূল্যে তালিকা প্রদর্শন না করায় ৪ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়। অভিযানে পরিচালনা করেন, প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ইসলাম উদ্দিন, মোঃ মশিউর রহমান, মোঃ বোরহান উদ্দিন ও সকিনা আক্তার।

এসময় ম্যাজিস্ট্রেষ্টগণ জানান, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাতে,বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম নিয়ন্ত্রণে ও জনসাধারণকে সচেতন করার লক্ষ্যে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের কারণে গণজমায়েত এড়াতে সকল সাপ্তাহিক হাট-বাজার স্থগিত করেছেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ। মঙ্গলবার (২৪) মার্চ বিকেলে গণমাধ্যমকে তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত জেলার সকল সাপ্তাহিক হাট-বাজার স্থগিত থাকবে। তবে জনদুর্ভোগ এড়াতে নিয়মিত দোকান-পাট, ফার্মেসি, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান ও কাঁচা বাজারগুলো খোলা থাকবে।