॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, পার্বত্য অঞ্চলের সকল ভাষাভাষীদের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। অসাম্প্রদায়িক এ বাংলাদেশের সকল জনগোষ্ঠি স্ব-স্ব ভাষা নিয়ে গর্বের সাথে বেঁচে থাকবে।

ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় প্রয়োজনে পাশে আছে পার্বত্য মন্ত্রনালয়। বঙ্গবন্ধুর সু-যোগ্য কন্যার প্রচেষ্টায় এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ উল্লেখ করে বীর বাহাদুর বলেন, ভাষা-সংস্কৃতি রক্ষায় উদ্যোগ নিতে হবে সকল সম্প্রদায়কে।

উপজাতীয়দের ভাষা উচ্চারণের ক্ষেত্রেও প্রয়োজন প্রশিক্ষণ। পাহাড়ের মানুষ বোঝা নয়, সম্পদ। আর সে সম্পদ হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলতে হবে। তবেই বোঝা, সম্পদে রূপান্তরিত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। সকল ভাষাভাষীর জন্য বঙ্গবন্ধু এদেশকে স্বাধীন করেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় শিক্ষা ক্ষেত্রকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। তাই সকল সম্প্রদায়ের অভিভাবকরা নিজেদের সন্তানদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে আহ্বান জানান।

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মারমা উন্নয়ন সংসদ এর কমিউনিটি সেন্টার উদ্বোধন শেষে খাগড়াছড়ি টাউন হলে কেন্দ্রীয় সম্মেলন, ত্রিবার্ষিক সভার আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মারমা উন্নয়ন সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি চাইথোঅং মারমার সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজাতীয় শরণার্তী বিষয়ক টাক্সফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ির মং সার্কেল সাচিংপ্রু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত সচিব ও ভাইস চেয়ারম্যান তরুণ কান্তি ঘোষ,খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেরারেল হামিদুল হক, খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম, নবাগত পুলিশ সুপার মোহা: আহমার উজ্জামানসহ রাজনৈতিক,প্রশাসনিকসহ বিভিন্ন স্থরের নেতৃবৃন্দরা এতে অংশ নেয়।

আলোচনা সভায় মারমা সম্প্রদায়ের নৃত্য উপভোগ করে মারমা ইতিহাস ও সংস্কৃতি নামক একটি গ্রস্থের মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি। এর আগে তিনি খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদ এর ২য় ও ৩য় তলার নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ও নারিকেল বাগানস্থ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন।