॥ বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি ॥

শ্রদ্ধেয় অভয়তিষ্য মহাথেরো শুক্রবার (২২ফেব্রুয়ারী) রাত ৮.২৫ টায় রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার শিজক মূখ সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহারে পরলোক গমন করেন।

শ্রদ্ধেয় ভান্তে ১৯৩৫ সালে (অবিভক্ত ভারতবর্ষ) ২৬ শে ডিসেম্বর জুরাছড়ি উপজেলার ঘিলাতলীতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৬ সালে ২১ বছর বয়সে প্রবজ্যা গ্রহণ করেন জুরাছড়ির ঘিলাতলী বৌদ্ধ বিহারে।

১৯৬০ সালের কাপ্তাই বাঁধের পর এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে কুমিল্লা, রাউজানসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় বৌদ্ধ বিহারে অবস্থান করে পরবর্তীতে ১৯৮২ সাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত (মৃত্যুর আগে পর্যন্ত) শিজকমূখ সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহারে স্থায়ীভাবে অবস্থান করে পরলোকে চলে গেলেন।

শিজকমূক বৌদ্ধ বিহারের উপদেষ্টা ও উপজেলা চেয়ারম্যান বড় ঋৃষি চাকমা বলেন, তিনি আমাদের সকলের পুজনীয় ব্যাক্তি তিনি একজন ধর্ম সাধক তিনি সব সময় মানব কল্যানে কাজ করে গেছেন। তার মৃত্যুতে আমরা গভীর শোকাহত শীঘ্রই আলোচনা করে অনেক বড় অনুষ্ঠানের মাধ্যেমে তার অনষ্টিক্রীয়া সম্পুর্ণ করা হবে ।

এদিকে রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক প্রকাশ চাকমা বলেন, শ্রদ্ধেয় ভান্তে আমার সম্পর্কে মামা হয়। পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ সমাজে শ্রদ্ধেয় অভয়তিষ্য ভান্তের অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ভান্তের পরলোকগমনের মধ্য দিয়ে আমরা হারালাম বৌদ্ধ সমাজের এক মহান ধর্মীয় গুরুকে।

উল্লেখ্য যে, শ্রদ্ধেয় অভয়তিষ্য ভান্তে বাঘাইছড়ি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী গ্রাম বটতলী এলাকার নিবাসী বোড়বো (নাদেকটুক) গোজার/গোষ্ঠীর প্রয়াত হারবোয়াথ মহাজন এর প্রথম সংসারের (১ছেলে ৪মেয়ের মধ্যে) পরিবারের জৈষ্ঠ এবং একমাত্র পুত্র সন্তান।