উপজেলা প্রতিনিধি, হিলরিপোর্ট

বরকল: দেশ জুড়ে অঘোষিত লকডাউনে স্তব্ধ হয়ে গেছে মানুষের জীবনযাত্রা। কিন্তু স্তব্ধ হয়ে যায়নি প্রকৃতির নীতি-রীতি। সবুজ আবরণ ভেদ করে সোনালী আলোয় মাঠে শোভা পাচ্ছে কৃষকের সোনালী ফসল ধান।

তাই নিজেদের কর্তব্য থেকে এগিয়ে এসে সকল জল্পনা পেছনে ফেলে মাঠে গিয়ে অসহায় প্রান্তিক পাহাড়ী জনগোষ্ঠীর ধান কেটে ঘরে তুলে দিচ্ছে বরকল ছাত্রলীগ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বরকল উপজেলার বাঘাছড়ার শাহানাজ বেগমের স্বামী অন্য এলাকাতে লগডাউনে আটকা পড়ে আছে। এলাকায় শ্রমিক সংকটের কারণে অনেকটা দুঃচিন্তায় পড়েন তিনি। কিভাবে পাকা ধান গোলায় তুলবেন।

বিষয়টি জানতে পেরে, বরকল উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মিরা। মঙ্গলবার বরকল উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ঐ কৃষকের ৪একর জমির পাকা ধান কাটে তা ঘরে তুলে দেওয়া হয়।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বেলাল হোসেন এর নেতৃেত্ব এ কাজে অংশ নেন-
উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রাজিব হোসেন, মো. হোসেন, সেলিম মাহমুদ সুমন, মোঃ রেজাউল ইসলাম,মোঃরিমন হোসেন,মোঃ লিটন হোসেন,মোঃ আলামিন,মোঃবেলাল মোঃ জসিম,মোঃ তৌহিদুল ইসলাম,মোঃ আরাফাত প্রমূখ।

কৃষক শাহানাজ বেগম জানান, এই দুর্যোগ মুহুর্তে খুব চিন্তায় ছিলাম কিভাবে চাষকরা পাকা ধান ঘরে তুলবো। ধান কাটার জন্য কোন শ্রমিক পাচ্ছিলামা না। ছাত্রলীগের ছেলেরা আমার ধান কেটে ঘরে তুলে দিছে। আমাদের তাদের জন্য মন থেকে দোয়া করি।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ বেলাল হোসেন জানান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ঘোষিত কর্মসূচি এবং জেলা ছাত্রলীগের নির্দেশে আমরা কৃষক শাহানাজ বেগমের ধান কেটে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করলাম। যতদিন এই মহামারি দুর্যোগ থাকবে এবং অসহায় কৃষক তার জমির ধান কাটতে শ্রমিক পাবে না, সাধ্যমতো তাদের সহযোগিতা করে যাবো উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে। আমরা উপজেলা ছাত্রলীগ শুরু থেকেই পাহাড়ের মানুষের পাশে ছিলাম আছি এবং থাকবো ইনশাআল্লাহ।

উপজেলা ছাত্রলীগের আরেক নেতা মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, কৃষক বাঁচলে, বাচবে দেশ।তাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করে আমরা অসহায় কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছি এটা আমার এবং ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মির নৈতিক দায়িত্ব।

এর আগে বরকল উপজেলা ছাত্রলীগ করোনায় অসহায় পড়া মানুষদের মাঝে কয়েকদিনব্যাপী সবজি বিতরণ করেছিলো ।