॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

পাহাড়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পাহাড়ি সশস্ত্র গ্রুপগুলো সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। রোববার (১৫এপ্রিল) সন্ধ্যা সাতটার থেকে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সীমান্তবর্তী মারিশ্যা-দীঘিনালা সড়ক এবং খাগড়ছড়িস্থ দীঘিনালা উপজেলার জোড়া ব্রিজ এলাকায় ত্রিমুখী সংঘর্ষ শুরু হয় বলে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। সংঘর্ষে ইউপিএিফ’র ২জনসহ মোট তিনজন নিহত এবং একজন অপহৃত হয়েছেন।

সূত্র মতে সংঘর্ষে সর্বশেষ অনুযায়ী জানা গেছে, খাগড়ছড়িস্থ দীঘিনালা উপজেলার মারিশ্যা-দীঘিনালা সড়কের জোড়া ব্রিজ এলাকায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট’র (ইউপিডিএফ) দুই কর্মীকে গুলি করে তাদের প্রতিপক্ষ গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফ। নিহতের মধ্যে একজনের নাম তপন চাকমা (৪০) জানা গেলেও অপরজনের নাম জানা যায়নি। ঘটনার সময় এক যুবক অপহৃত করা হয়েছে।

অপরদিকে রাঙামাটিস্থ বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের মারিশ্যা-দীঘিনালা সড়কের ৮-৯কিলো নামক স্থানে ইউপিডিএফ’র আরেক কর্মী বিজয় চাকমাকে (৩২) হত্যা করেছে তাদের প্রতিপক্ষ জেএসএস সংস্কার এমএন লারমা গ্রুপ।

ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে খাগড়াছড়িস্থ দীঘীনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সামসুদ্দীন এবং রাঙামাটিস্থ বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন ঘটনাটি দূর্গম হওয়ায় যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না।