স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: দেশের প্রধানমন্ত্রীর কাছে আইসিইউ চাইলেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) একেএম মামুনুর রশীদ। মঙ্গলবার (০৭এপ্রিল) সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কনফারেন্সে কথা বলার সময় তিনি এ দাবি করেন।

ডিসি মামুনুর রশীদ প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ আছে কিন্তু কোন আইসিইউ নেই। দেশের বৃহৎ এ জেলায় একটি আইসিইউ খুবুই জরুরী। এসময় প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হন।

ডিসি মামুনুর রশীদ প্রধানমন্ত্রীকে করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে বলেন, রাঙামাটিতে এখন পর্যন্ত কোন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। জেলায় অস্থায়ীভাবে ১৫০ বেড আইসোলেসনের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়াও রোগী পরিবহনের জন্য ৪টি এ্যাম্বুলেন্স ও নৌপথে রোগি আনার জন্য ৪টি স্পিড বোট প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

তিনি জানান, রাঙামাটির নিম্ন আয়ের মানুষের খাদ্যর প্রয়োজন। তাদের কাছে খাদ্য পৌঁছে দিতে ব্যবস্থা নিচ্ছি। এরমধ্যে ৩২ হাজার ৮৮০ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ প্রদান করা হয়েছে এবং এ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এ কাজে সেনা-পুলিশ সকলকে নিয়ে এ দূর্যোগ মোকাবেলা করা হচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রীকে অবগত করেন।

প্রধামন্ত্রী এসময় রাঙামাটিতে কোন করোনা রোগী না পাওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন এবং কর্মহীন, অসহায় মানুষদের সাহায্য দিয়ে যাওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। এছাড়া ১০টাকা চালের ব্যাপারে তিনি জানান, যারা চালগুলো ক্রয় করেন তাদের জন্য পরবর্তী সময়ে একটি রেশম কার্ডেও ব্যবস্থা করে দেওয়ার কথা জানান।

রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সরকারের নির্দেশ মেনে কাজ করছি। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে কিছু খাদ্যশষ্য ও কিছু খয়রাতি টাকা পাওয়া গেছে। সেসব কিছু প্রায় সাড়ে চার হাজার পরিবারের মাঝে বিতরণ করেছি।

তিনি আরও বলেন, সাজেকের সাথে সড়ক বা নৌপথে যোগাযোগের কোন ব্যবস্থা নেই। সাজেকে হার্মের প্রাদুর্ভাব চলছে। আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি সকলের প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে।