স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: রাঙামাটির প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে গিয়ে সুউচ্চ ফুরোমোন পাহাড়ের আরোহনের পর হারিয়ে যাওয়া ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থীকে
উদ্ধার করেছে সেনাবাহিনী ও পুলিশ। জেলা পুলিশ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

৫ ফেব্রুয়ারি সকালে রাঙামাটি শহরে এসে ক্যাম্পিং এর জন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর ফুরোমোন পাহাড়কে বেছে নেয় ৬ শিক্ষার্থী বন্ধু।পরিকল্পনা মতো বিকালে ফুরোমোন পাহাড়ে ক্যাম্পিংয়ের এই দুঃসাহসিক অভিযানের যাত্রা শুরু করে তারা। যাত্রা পথে পাহাড়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ এবং নিজেদের মধ্যে গল্প গুজব করতে করতে কখন যে সন্ধ্যা হয়ে গেছে সেটা কেউ টের করতে পারেনি। পাহাড়ে ভ্রমণের পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকা এবং যাত্রাপথ না চেনায় নানা কারণে নিজেদের মধ্যে অজানা শঙ্কা কাজ করতে থাকে।

নিজেদের মধ্যে অজানা শঙ্কা সন্ধ্যার পরই বাস্তবে রুপ নেয়। চারদিকে পাহাড়
আর পাহাড়, যাত্রাপথ না চিনা, চারদিকে মানুষ জন না দেখে ভয়ে এই পরিস্থিতি
থেকে বের হওয়ার জন্য আকুল হয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা।

কোন উপায়ন্তর না দেখে বাংলাদেশ পুলিশের জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল দেয়
শিক্ষার্থীরা। ৯৯৯ এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের খবর পেয়ে রাঙামাটি জেলা পুলিশ সুপার মীর মোদ্‌দাছ্ছের হোসেন শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে। পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতা গ্রহণ করা
হয়।

রাঙামাটি জেলা পুলিশ ও সেনাবাহিনীর যৌথ প্রচেষ্টায় শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে সেনা ক্যাম্পে রাত্রী যাপনের ব্যাবস্থা করা হয়। শনিবার সকালে শিক্ষার্থীদেরকে সেনা ক্যাম্প থেকে পুলিশ সদর সার্কেল অফিসে নিয়ে আসা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সদর সার্কেল) তাপস রঞ্জন ঘোষ তাদের এই দুঃসাহসিক অভিযানের বর্ণনা শুনেন এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করেন । এসময় শিক্ষার্থীরা দ্রুততার সহিত ৯৯৯ এর মাধ্যমে পুলিশী সেবা পেয়ে বাংলাদেশ পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।