॥ স্টাফ রিপোটার ॥

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় ভান্তের বিরুদ্ধে এক নারী হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (২২জানুয়ারী) দুপুরে উপজেলার জীবতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার শিকার ও প্রত্যক্ষদর্শী বরাতে জানা গেছে- মঙ্গলবার দুপুরের দিকে উপজেলার জীবতলী গ্রামের শান্তিপুর বনবিহারের পাশে রাজিয়া বেগম (৩৫), শাহারা বেগম ও মোসলেমা খাতুন নামের তিন নারী মিলে গবাদি পশুর ঘাস এবং জ্বালানি সংগ্রহ করতে যায়। এমন সময় বিহারে অবস্থান করা এক ভান্তে দ্রুত গতিতে এসে অতর্কিত ভাবে রাজিয়া বেগমের উপর চওড়া হয় এবং বাঁশ দিয়ে বেধড়ক পিঠাতে থাকে।

এরপর ভান্তে ওই নারীর গায়ের উপর উঠে একটি ধারালো দা দিয়ে জবাই করার চেষ্টা চালালে ওই নারীর আত্মচিৎকারে কিছুদূরে থাকা তার দু’সঙ্গী নারী ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে ভান্তে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে রাজিয়াকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে।

স্থানীয় একটি সূত্রে খবর নিয়ে জানা যায় ঘটনার শিকার রাজিয়ার উপর হামলাকারী ভান্তের নাম কমিপ ভান্তে। বর্তমানে  তিনি ওই বিহারে অবস্থান করছেন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে আমাদের প্রতিনিধি কমিপ ভান্তের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান- আমি ওই নারীদের লাকড়ি সংগ্রহ না করার জন্য বলেছিলাম। কিন্তু তারা আমার কথা না শুনায় আমি তাদের ভয় দেখায়।

এ বিষয়ে বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কমকর্তা (ওসি) এমএ মনজুরুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান- আহত রাজিয়াকে দেখতে আমি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে গিয়েছি। আহত ওই নারীকে শান্তিপুর বনবিহারের সভাপতি জ্ঞানরঞ্জন চাকমা কিছু চিকিৎসা সেবা প্রদান করে। তিনি আরও জানান- এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।