॥ জুরাছড়ি প্রতিনিধি ॥

রাঙামাটির দূর্গম জুরাছড়ি উপজেলার ৩নং মৈদং ইউনিয়নের বামে মৈদং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা টয়লেট সমস্যায় জর্জরিত। বিদ্যালয়ে টয়লেট না থাকায় শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসতে চাই না। দীর্ঘ বছর ধরে টয়লেট সমস্যার কারণে বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্রীকে ঝড়ে পরতে হয়েছে।

আর এ সমস্যা দূরীকরণে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রিন্টু চাকমা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের (এলজিইডি) কাছে সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে রিন্টু চাকমা জানান- এ বিদ্যালয়ে দীর্ঘ সাত বছর ধরে কোন টয়লেট নেই। ছাত্র-ছাত্রীদের চরম ভোগান্তি পৌহাতে হচ্ছে। বিদ্যালয়ের এ সমস্যা দূরীকরণ অত্যন্ত জরুরী বলে তিনি জানান।

তিনি অভিযোগ করে বলেন- বিদ্যালয়ে আশেপাশে ছাত্র-ছাত্রীরা বিদ্যালয় ও তার আশপাশে মলমূত্র করার কারণে পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। থাকেন শিক্ষার্থীরা। যে কোন সময় শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে যোগ করেন তিনি ।

৩নং মৈদং ইউপি চেয়ারম্যান সাধনা নন্দ চাকমা জানান- উক্ত বিদ্যালয়ে টয়লেট না থাকার বিষয়ে কেউ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কিংবা পরিচালনা কমিটির সভাপতি কখনো আমাকে অবগত করেনি।

তিনি আরো জানান, প্রতিবছর সরকার থেকে প্রত্যক বিদ্যালয়ে স্লিপের জন্য ৪০ হাজার টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয় ঐ টাকা দিয়ে টয়লেট নির্মাণ করা যায় বলে জানান চেয়ারম্যান।

উক্ত বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক হিরণ বিজয় চাকমা জানান- ২০০৯ সালে স্লীপের টাকা দিয়ে টয়লেট নির্মাণ করা হলেও কিন্তু বর্তমানে ঐ টয়লেট প্রায় অকেজো হয়ে পড়েছে। এজন্য বর্তমান সময়ে স্কুলে একটি টয়লেট নির্মাণ করা জরুরী।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কৌশিক চাকমা জানান, তিনি এই বিদ্যালয়টি পরিদর্শনে গিয়ে কোন প্রকার স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট চোখে পড়েনি বলে অভিযোগ করেন।

সম্প্রতি ঐ বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে গিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিটন চাকমা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপদ পানি ব্যবহারের জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে একটি গভীর নলকূপ দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।