উপজেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

বিলাইছড়ি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে করোনা দুর্যোগ পরবর্তী খাদ্য পরিস্থিতি মোকাবিলায় পর্যাপ্ত পরিমাণ খাদ্য উৎপাদন করার লক্ষ্যে প্রতি ইঞ্চি জমিতে কৃষি আবাদ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় উপজেলা প্রশাসনের অর্থায়নে ও উপজেলা কৃষি বিভাগের সার্বিক পরামর্শক্রমে বিলাইছড়িতে বিনামূল্যে শাকসবজির বীজ বিতরণ করা হয়। বুধবার (২২এপ্রিল) সকালে কৃষকদের মাঝে এসব বিজ বিতরণ করা হয়।

বিলাইছড়ির উপজেলা নির্বাহী অফিসার পারভেজ চৌধুরী ও উপজেলা কৃষি অফিসার মো. মেজবাহ উদ্দিন উপস্থিত থেকে এ বীজ বিতরণ করেন।

বিতরণকালে নির্বাহী অফিসার পারভেজ চৌধুরী বলেন, বিলাইছড়ি উপজেলায় করোনা ভাইরাস এর এই দুর্যোগের সময় সরকারি সহায়তার পাশাপাশি প্রত্যেক পরিবারকে কিছুটা হলেও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে গ্রীষ্মকালীন মৌসুমি শাক-সবজি প্রত্যেক বাড়িতে, প্রতিষ্ঠানের উন্মুক্ত স্থানে আবাদ করার উদ্যেগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ২০০ টি পরিবার ও উপজেলার সকল সরকারি দপ্তরের উন্মুক্ত স্থান এবং বিভিন্ন পতিত জমি নির্ধারন করা হচ্ছে।

অল্প সময়ে ফলন হয় এইরকম বিভিন্ন প্রকারের শাক সবজির বীজ উপজেলা কৃষি অফিসার এর আন্তরিতার প্রচেষ্টায় ও মতামত অনুযায়ী উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক ক্রয় করা হয়েছে।

শাক সবজির বীজের মধ্যে রয়েছে মিষ্টিকুমড়া, চিচিংগা, ঝিংগা, হাইব্রিড চিচিঙ্গা, হাইব্রিড ঝিংগা, ঢেড়শ, বরবটি, করলা, পুঁইশাক, বাটি শাক ও লাল শাক। এ বিষয়ে কৃষি অফিসের বিভিন্ন সহকর্মীরা সহযোগিতা করছেন। সার্বিক কার্যক্রমে সহায়তা করার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসের সকলকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মেজবাহ্ উদ্দিন বলেন, চলমান করোনা পরিস্থিতি ও তার পরবর্তী সময়ে দেশে কি পরিস্থিতি হবে তা কেও বলতে পারছেনা। তবে ধারণা করা যায় তীব্র খাদ্য সংকটে পরতে পারে দেশ। এমতা অবস্থায় বেশী বেশী ফসল উৎপাদনের বিকল্প নেই। তাই আমরা সকলকে উৎসাহিত করতে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য কৃষকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে শাকসবজির বীজ বিতরণ করছি। তিনি সকলকে বাড়ির আঙিনায় নানা রকম শাকসবজি আবাদ করার পরামর্শ দেন।

বীজ বিতরণ কালে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা রুবেল বড়ুয়া, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চাথোয়াই মার্মা, এলাকার ইউপি সদস্য জ্যোতিময় চাকমা, এলাকার কার্বারী অংশেপ্রু মার্মা।