॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

রাঙামাটি বিয়াম ল্যাবরেটরী স্কুলের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষকে পদ থেকে অনতিবিলম্বে অব্যাহতি দিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষারমান সুষ্ঠু সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ৪৬ অভিভাবক।

স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদকে অভিভাবক কর্তৃক ১৯টি কারন দেখিয়ে অভিযোগ দেওয়ার পরও এ যাবৎ কোন প্রতিকার পাননি অভিযোগকারী এসব অভিভাবকরা।

তারা বলেন- জৈষ্ঠতার ভিত্তিতে সহকারি শিক্ষক থেকে যে কোন একজনকে উপাধ্যক্ষ পদে পদোন্নিত প্রদান করতে পারতেন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু পারভেজুল ইসলাম সুমনকে নিয়ম বর্হিভূত ভাবে উপাধ্যক্ষ পদে পদোন্নিত প্রদান করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ি জৈষ্ঠতার ভিত্তিতে সহকারি শিক্ষক থেকে একজনকে উপাধ্যক্ষ পদে পদোন্নিত করেনি কর্তৃপক্ষ।

রাঙামাটি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিয়াম স্কুলের অধ্যক্ষ সুমনি আক্তার ও উপাধ্যক্ষ পারভেজুল ইসলাম সুমন স্কুলে যোগদান করার পর হতে দিন দিন স্কুলের শিক্ষারমান ব্যাহত হচ্ছে। কারন অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ স্কুলের প্রতি নজর না দেওয়ায় স্কুলের শিক্ষারমান শূন্যের কোটায় নেমে আসছে বলে অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয়।

জেলা প্রশাসককে যে ৪৬ জন অভিভাবক অভিযোগ দিয়েছেন তার মধ্যে একজন জয়নাল আবেদীন। তিনি বলেন, বিয়াম স্কুল আগে অনেক সুনাম ছিলো। যে নতুন অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ স্কুলে যোগদান করলো তার পর থেকে স্কুলের শিক্ষারমান ও স্কুলের পরিবেশ নষ্ট হতে শুরু করে। এসব বিষয় অনেকদিন সহ্য করার পর অভিভাবকগণ বিষয়টি লিখিত ভাবে জেলা প্রশাসককে অবগত করেছেন বলে জানান।

অভিযোগকারী অভিভাবকেরা সাংবাদিকদের জানান- ডিসি এসময় তাদেরকে অবহিত করেন এ বছর ডিসেম্বরের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান করা হবে। আর সদর ইউএনও ও স্কুলের অধ্যক্ষর ব্যাপারে স্কুল পরিচালনা কমিটি বুঝবেন। আর অভিজ্ঞ সিনিয়র সহাকারী শিক্ষিকা নিগার সুলতানাকে নিয়ে স্কুলে যে সকল চক্রান্ত চলছে তা খতিয়ে দেখছেন স্কুল পরিচালনা পর্ষদের দায়িত্বপ্রাপ্তরা এমন তথ্য ডিসি তাদের জানান বলে অভিভাবকেরা সাংবাদিকদের অভিহিত করেন।

এ অভিভাবকগণ আরও বলেন- যদি জেলা প্রশাসক তাদের দাবির ভিত্তিতে কোন প্রদক্ষেপ গ্রহণ না করে তাহলে ডিসেম্বর পরবর্তী নতুন বছরে তাদের সন্তানদের অন্য স্কুলে নিয়ে যাবেন বলে জানান।

স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ মুঠোফোনে বলেন, এ সংক্রান্ত ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। তবে স্কুলের দায়িত্বপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এবং রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমনি আক্তারের সাথে কথা বলবেন বলে ডিসি জানান। ইউএনও কর্তৃক স্কুলের অধ্যক্ষ পদে দায়িত্বটা অস্থায়ী পদ বলে ডিসি যোগ করেন।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিয়াম স্কুলের অধ্যক্ষ সুমনি আক্তার বলেন, স্কুলে কোন সমস্যা বা কোন্দল নেই। এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা সাংবাদিকদের কাছে কেন যাবেন বলে মন্তব্য করেন।