আল-মামুন। জেলা প্রতিনিধি

খাগড়াছড়ি: মানুষ মানুষের জন্য প্রবাদটি অনুসরণ করে খাগড়াছড়িতে এবার একের পর এক ব্যাক্তিগত উদ্যোগে দূর্গম জনপদের কর্মহীন-দরিদ্র মানুষের পাশে খাদ্য সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন স্থানীয় সমাজ সেবক ও ব্যবসায়ীরা। করোনা গরীব-দু;খী মানুষ যখন কর্মহীন ও অসহায় জীবন যাপন করছে তখনেই মানবতার সেবায় হাত বাড়ালেন সমাজ সেবক লক্ষ্মী চাকমা।

শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত খাগড়াছড়ি জেলা শহরের ঠাকুরছড়া চরপাড়ায় ৫০ পরিবার,আপার পেড়াছড়া ২৫ পরিবার,সাতভাইয়াপাড়া ৩০ পরিবার,বটতলী চাকমাপাড়ায় ২৫ পরিবারসহ ১৩০ পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন তিনি। ত্রান বিতরণ কালে খাগড়াছড়ির সিনিয়র সাংবাদিক প্রদীপ চৌধুরী,আওয়ামীলীগ নেতা রুথান চৌধুরী,এলাকার জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এতে সাধারণ হত দরিদ্র মানুষের জন্য সয়াবিন তেল ১ কেজি,আলু দেড় কেজি,ডাল ১ কেজি,লবণ ১ কেজি,১টি সাবান ও হলুদ গুড়া তুলে দেওয়া হয়। এ সময় লক্ষ্মী চাকমা বলেন, নিজ নিজ অবস্থান থেকে আমরা সামান্য কিছু নিয়ে হলেও দরিদ্র ও কষ্টে থাকার মানুষের পাশে দাঁড়ালে অসহায় মানুষের মাঝে স্বস্থি ফিরবে। তাই সকলকে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানান তিনি।

এদিকে- একই সময়ে খাগড়াছড়ি পৌর শহরের এপিবিএন এলাকা,কল্যাণপুর,অর্পণা চৌধুরী পাড়া ও বাজারের দক্ষিণ মাথা এলাকায় ব্যাক্তিগত উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী তুলে নুর মোহাম্মদ নামের এক যুবক। তিনি জানান, নিজের মনের আগ্রহ থেকে নিজ এলাকা ও আশপাশের এলাকার ৭০ পরিবারের জন্য ৫ কেজি চাল, ২ কেজি আলু, ডাল আধা কেজি তেল আধা কেজি নিয়ে সাহার্য্যরে হাত বাড়িয়েছে।

আজ নয় স্থানীয়ভাবে যে কোন সময় মানুষের পাাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করে নুর মোহাম্মদ বলেন, আমরা একে অপরের কষ্টে যদি এগিয়ে আসতে না পারি তবে সমাজ বদলাবে কি করে? করোনা প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করা তোলাসহ সাধ্যমত বিত্তশালীদের অসহায়,কর্মহীন দুস্থ মানুষের কষ্ট লাগবে পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানান।