॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥

নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে হামলা চালানোর সময় ভূপাতিত হওয়া ভারতের যুদ্ধবিমানের পাইলট অভিনন্দনকে ফিরিয়ে দিচ্ছে পাকিস্তান। ভারতের পক্ষ থেকেও অভিনন্দনকে ফিরিয়ে নিতে সব প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, বিকেল ৩-৪টার মধ্যেই মুক্তি পেয়ে যাবেন অভিনন্দন। ওয়াঘা সীমান্তে পাইলটকে গ্রহণ করবেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর কর্মকর্তারা। এরইমধ্যে তার পরিবারের সদস্যরা চেন্নাই থেকে দিল্লীতে পৌঁছেছেন।

ভারতীয় বিমানবাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ইসলামাবাদ থেকে সড়কপথে তাঁকে নিয়ে আসা হচ্ছে লাহোরে। অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়া হবে ওয়াঘা-আতারি সীমান্তে। তারপর তাঁকে অমৃতসর হয়ে দিল্লিতে নিয়ে যাওয়া হবে।

অভিনন্দনের মুক্তির খবর পেয়ে সকাল থেকেই ওয়াঘা সীমান্তে হাজির হয়েছেন কয়েক’শ মানুষ। ইতিমধ্যেই ওয়াঘা সীমান্তে পৌঁছে গেছেন অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান এবং মা শোভা বর্তমান। ভারতীয় বিমানবাহিনী এবং সেনার শীর্ষ কর্মকর্তারাও ওয়াঘা সীমান্তে পৌঁছে গেছেন।

এদিকে, অভিনন্দন বর্তমানের মুক্তির বিষয়টির কথা বিবেচনা করেই আতারি সীমান্তে ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসএফ। অমৃতসরের ডেপুটি কমিশনার শিব দুলার সিং সংবাদ সংস্থা এএআইকে এ কথা জানান।

জানা গেছে, অভিনন্দনকে বিমানে ভারতে ফেরত পাঠানো হোক- এমনটাই ইসলামাবাদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিল দিল্লি। কিন্তু ইসলামাবাদ সেই অনুরোধে সাড়া দেয়নি। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওয়াঘা-আতারি সীমান্ত দিয়েই নিয়ে আসা হবে অভিনন্দনকে। তারপর তুলে দেওয়া হবে ভারতের হাতে।