॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদীয় নির্বাচনে রাঙামাটি ২৯৯নং আসনে নির্বাচন করার জন্য বিএনপি থেকে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ায় উচ্ছ্বাসিত বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা। এ আসনে বিএনপি একবারই মণি স্বপনের হাত ধরে বিজয়ী হতে পেরেছে। আর এ বিজয়ীর কারণে মণি স্বপনও পেয়ে যান পার্বত্য উপ-মন্ত্রীর পদ। এছাড়া অতীতে এ আসন থেকে বিএনপি কোনদিন জয়ী হতে পারেনি।

৯০পরবর্তী আ’লীগ তিনবার, বিএনপি একবার সর্বশেষ জেএসএস একবার আসনটিতে জয়ী হতে পেরেছে।আর এ একবারই বিএনপি জয়ী হয়েছিলো মণি স্বপনের হাত ধরে। তাই কেন্দ্রেীয় বিএনপি আর কোন ঝুঁকি নিতে চাননি এ আসটি নিয়ে। পুরনো, অভিজ্ঞ খেলোয়াকে ভোটের লড়াইয়ে সংযোজন করেছে বিএনপি। আর এতে তৃণমূল বিএনপি থেকে শুরু করে শীর্ষস্থানীয় বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা স্বস্থীর নি:শ্বাস ফেলছে। এবার তাদের টার্গেট এ আসনটি জয়ী করে বেগম খাদেদা জিয়াকে উপহার দেওয়া।

স্থানীয় বিএনপি’র একাধিক সূত্রে জানা গেছে- বিএনপি’র হেভিওয়েট নেতাদের আষ্কিার হচ্ছে মণি স্বপন। আর এ সেন্ডিকেটে যুক্ত আছেন জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক দীপেন তালুকদার দীপু, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পনির, যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম শাকিল, সাধারণ সম্পাদক আবু সাদাৎ সায়েম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাহঙ্গীর আলম তালুকদারের মতো শক্তিশালীরা নেতারা। তাই আগামী নির্বাচনে বিএনপি’র প্রার্থী মণি স্বপনকে এবারের নির্বাচনে হারানো কঠিন বলে সূত্রটি জানান।

এদিকে বিএনপি’র এমন উচ্ছ্বাসিত দিনে জেলা বিএনপি’র সভাপতি মো. শাহ আলম জানান- আমরা বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ। আগামী নির্বাচনে এ আসনটি জয়ী করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে উপহার দিতে চাই।দল যাকে মনোনয়ন দিয়েছে তার পক্ষে সকলে মিলে-মিশে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি সদর থানা ছাত্রদলের সভাপতি তারেক আহম্মেদ জানান- আমাদের একটি মাত্র লক্ষ্য দলের প্রার্থীকে যে কোন উপায়ে বিজয়ী করতে হবে। তাই দলের নির্দেশ মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছি।

রাঙামাটি সদর থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল ইসলাম জানান- দল যাকে মনোনয়ন দিয়েছে তার জন্য দলের নির্দেশ মোতাবেক ছাত্রদলের সকল নেতা-কর্মীরা কাজ করে যাবে।

চূড়ান্ত পর্যায়ে বিএনপির মনোনয়ন বঞ্চিত দীপেন দেওয়ানের অভিব্যক্তি জানতে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ব্যক্তিগত মুঠোফোনটি তার এক সহকারী ধরে জানিয়ে দেয় তিনি এখন ব্যস্ত আছেন।

প্রসঙ্গত: জেলা বিএনপি থেকে এ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন ৯জন। এদের মধ্যে কেন্দ্রেীয় বিএনপি যাচাই-বাছাই করে এ আসনের জন্য কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক দীপেন দেওয়ান এবং সাবেক বিএনপি’র পার্বত্য উপ-মন্ত্রী মণি স্বপন দেওয়ানকে প্রাথমিক ভাবে মনোনয়ন প্রদান করে।

এরপর সর্বশেষ শুক্রবার (৭নভেম্বর) সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় বিএনপি তাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের মাধ্যমে জানিয়ে দিলো ২৯৯ আসনে এবারের একাদশ জাতীয় সংসদীয় নির্বাচনের লড়াইয়ে অবতীর্ণ হবেন সাবেক পার্বত্য উপ-মন্ত্রী মণি স্বপন দেওয়ান।