মঈন উদ্দীন বাপ্পী । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে রাঙামাটির চার করোনা রোগীর দ্বিতীয় দফা ফলাফল রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এই সংবাদ পাওয়ার পর রাঙামাটির অনেকে স্বস্থির নি:শ্বাস ফেলছে। অনেকে প্রচারণা করতে শুরু করছে রাঙামাটি করোনামুক্ত। কিন্তু বাস্তবিক অর্থে রাঙামাটি এখনো করোনামুক্ত হতে পারেনি।

রাঙামাটি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনা ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান ডা: মোস্তফা কামাল জানান, আমরা এখনো করনোমুক্ত হতে পারেনি। তৃতীয় দফার রিপোর্ট এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

এছাড়া আরও ১৮১টি রিপোর্ট হাতে পাওয়া বাকী আছে। পরবর্তীতে হয়তো এর সংখ্যা আরও বাড়বে। সর্বপরী এখনো বলা যাবে না রাঙামাটি করোনামুক্ত।

এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী রাঙামাটিতে সর্বমোট কোয়ারেন্টাইনে ছিলো ২১৪১জন। এর মধ্যে- প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ৬৭০ এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলো ১৪৭১জন। ১৭৭৬জনের কোয়ারেন্টাইন মেয়াদ শেষ হয়েছে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৩৬৫জন।

সর্বশেষ নমুনা পাঠানো হয়েছে ৪৬১জনের। রিপোর্ট পাওয়া গেছে ২৮০জনের। কোভিট-১৯ পজেটিভ পাওয়া গিয়েছিলো ০৪জনের এবং নেগেটিভ পাওয়া গেছে ২৭৬জনের। রিপোর্ট পাওয়া বাকী আছে ১৮১জনের। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাঙামাটিতে কেউ মারা যাননি বলে সূত্রে জানা গেছে।

পাহাড়ি জেলা রাঙামাটি এতদিন ছিলো করোনামুক্ত ছিলো। হঠাৎ করে বুধবার দুপুরে একজন নার্সসহ ৪জন করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়েছে। বুধবার (০৬মে) চট্টগ্রাম ভেটেরেনারী ও এ্যানিমেন্স সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে নমুনা পরিক্ষায় তাদের রিপোর্ট পজেটিভ আসে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: মোহাম্মদ শাহরিয়ার কবির। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নার্স (নারী), একজন শিশু, একজন যুবক এবং একজন প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষ রয়েছেন।