॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

রাঙামাটি: রাঙামাটিতে নির্বাচনী প্রচারণাচলাকালে আ’লীগ- বিএনপি সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২৫জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। রোববার (১৬ডিসেম্বর) রাতে জেলা শহরের ভেদভেদী এলাকায় এ সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষে আহতরা হলেন- ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য মো. মণির, মো. সোহেল, ৬নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগের সদস্য মো. জসীম, ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য মাসুদ, পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. অপু, রাঙামাটি পৌর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বাসেত অপু, সহ-সভাপতি মহসিন মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি রবি বড়–য়া, জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক মো. বাবলু, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মো. নাজমুল হুদা, প্রচার সম্পাদক মো. আরজু, ৮নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছসেবক দলের সদস্য সাধন, লোকমান হোসেন, মনোয়ারা, শ্রাবন, রবিন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফারুক আহম্মেদ সাব্বির,  জেলা বিএনপি’র সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইলিয়াস, শহর ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান চৌধুরী সুমন, ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের সদস্য মানিক, ৮নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের সদস্য মোরশেদ, বাবু, আলী হোসেন, ইমন এবং তারেক।

ঘটনার পরপরই আ’লীগ এবং বিএনপি উভয়দল ঘটনার দিন রাতে তাদের দলীয় কার্যালয়ে জরুরী সংবাদ সন্মেলন করেছে।

আ’লীগের সংবাদ সন্মেলনে মহিলা সংরক্ষিত আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু জানান- বিএনপি আমাদের এলাকায় এসে প্রচারণার নামে আমাদের দলীয় নেতা-কর্মীদের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা পরিচালনা করেছে। এতে আমাদের নেতা-কর্মীরা দিশেহারা হয়ে যায়। এ ঘটনার জন্য আমি তীব্র নিন্দা জানায় এবং দোষীদের গ্রেফতার করতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন এ জাতীয় সংসদ সদস্য।

সংবাদ সন্মেলনে জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জসীম উদ্দীন বাবুল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রফিকুল মাওলা, দপ্তর সম্পাদক রফিক তালুকদার।

অপরদিকে রাঙামাটি আসনে এমপি প্রার্থী মণি স্বপন দেওয়ান বলেছেন- আমরা সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক চাই। এ ধরণের ঘটনা প্রমাণ করে দেশে এখনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয়নি। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মণি আরও বলেন- আমরা হামলা করতে যায়নি। যদি হামলা করতাম তাহলে আমরা দুই ঘন্টা ধরে অবরুদ্ধ থাকতাম না।

সংবাদ সন্মেলনে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক দীপেন দেওয়ান, উপজাতি বিষয়ক সহ-সম্পাদক কর্ণেল মণীষ দেওয়ান, জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহ আলম, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম ভুট্টোসহ দলটির নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।