॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় রাঙামাটির জেলা প্রশাসন সম্পূন্ন প্রস্তুত। দিন-রাত  নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ও অন্যান্য কর্মকর্তারা কাজ করছেন বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানােনা হয়।

সোমবার সকালে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি থেকে জানা গেছে, রাঙামাটিতে বর্তমানে চিকিৎসা সুরক্ষার জন্য ৯১১টি পিপিই মজুদ রয়েছে।

‘করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য সরকারি ১১টি কেন্দ্রে ২৬৩টি বেড প্রস্তুতি রেখেছে। যার মধ্যে কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য প্রস্তুতকৃত বেড রয়েছে ১৪২টি। কোভিড-১৯ মোকাবেলায় ডাক্তার প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে ৮৬জনকে এবং নার্স রয়েছেন ১০০জন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়- ‘ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে পিপিই রয়েছে ৯১১টি, যার মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে ১২টি। সর্বমোট মজুদের মধ্যে জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের কাছে পিপিই মজুদ রয়েছে ৫০০টি।

এছাড়া সার্জিকেল মাস্ক রয়েছে ১৪৭০টি, বিতরণ করা হয়েছে ৪০টি। মাস্ক এন রয়েছে ৯৫-৬০টি, হাতে তৈরি মাস্ক ২৮০টি, বিতরণ করা হয়েছে ২২০টি। জরুরী ঔষধ পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে।’

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়- ‘রাঙামাটিতে পূর্বে ১৭৩জন এবং বর্তমানে আরো ০৮জনসহ বর্তমানে হোম-কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১৮১জন। যার মধ্যে থেকে আবার কোয়ারেন্টাইন ছাড়পত্র পেয়েছেন ৬৭জন।