স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: করোনার গ্রাসে ক্ষতিগ্রস্থ কর্মহীন, অসহায়দের কথা চিন্তা করে সরকার নানা মনবিক কার্যক্রম হাতে নিচ্ছে। এব্যাপারে সরকার ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ প্রদান করেছে।

সরকারের এই মহতি কার্যক্রমে রাঙামাটির ১০টি উপজেলার খেট খাওয়া প্রায় ৬০হাজার পরিবারেক সম্পৃক্ত করা করেছে। আর প্রতি পরিবার এই সুবিধা নিয়ে ২০কেজি চাল ক্রয় করতে পারবে।

এব্যাপারে আগামী ৩ দিনের মধ্যেই তালিকা তৈরি করে মন্ত্রনালয়ে পাঠানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এজন্য মে মাসের ৩তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট পৌরসভা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের সুবিধাভোগীদের চূড়ান্ত তালিকা জমা দেয়ার আদেশ প্রদান করা হয়।

এদিকে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি সদর উপজেলায় ৫০০ পরিবার, রাঙামাটি পৌরসভা এলাকায় ৯হাজার পরিবার, বাঘাইছড়ি উপজেলা ও পৌরসভা মিলে ৯৬০০পরিবার, কাপ্তাই উপজেলায় ৬০০০হাজার পরিবার, রাজস্থলীর ২৮০০ পরিবার, বিলাইছড়ির ২৮০০ পরিবার, নানিয়ারচর উপজেলায় ৪৩০০ পরিবার, জুরাছড়ি উপজেলায় ২১০০ পরিবার, বরকল উপজেলায় ৪৪০০ পরিবার, কাউখালী উপজেলায় ৬০০০ পরিবার এবং লংগদু উপজেলায় ৮০০০ পরিবার এই সুবিধা ভোগ করবে। তবে সরকারের ওএমএস ও ভিজিএফ সুবিধার আওতায় থাকা পরিবারগুলো এই এই সুবিধার আওতায় পড়েব বলে সূত্রে নিশ্চিত করা হয়।

যারা এই তালিকায় নাম জমা দিন চায় তাদেরকে দ্রুত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষট পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে নিজ নিজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার সাথে যোগােযাগ করে নাম জমা দিতে হবে। এ্ই ব্যাপারে জেলা প্রশাসন সকল উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা এবং পৌরসভাগুলােকে নির্দেশ দিয়েছেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক (ডিসি) একেএম মামুনুর রশিদ বলেছেন, সরকার চাই করোনার এই ক্রান্তিকালে কোন মানুষ কষ্টে না পড়ুক। তাই সরকার সমাজের বিপদগ্রস্থ মানুষের জন্য নানা মানবিক প্রকল্প তৈরি করছেন এবং এই প্রকল্পের সুবিধায় সেইসব মানুষদের অন্তর্ভুক্ত করছেন।