স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: রাঙামাটিতে তিন দিনব্যাপী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৫নভেম্বর) সকালে প্রধান অতিথি থেকে উদ্বোধন করেন- জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স রাঙামাটি জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. দিদারুল আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপরাধ মারুফ আহম্মেদ, রাঙামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, রাঙামাটি গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী অনিন্দ্য কৌশল।

এর আগে জেলা প্রশাসক-কে গার্ড অব অর্নার প্রদান করা হয়। জাতীয় সঙ্গীতের মধ্যে দিয়ে জাতীয় পতাকা, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স পতাকা উত্তোলন করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন হয়। পরে শান্তির প্রতীক পায়রা উড়ানো হয় এবং অতিথিরা আগুন নির্বাপক যন্ত্রের সরঞ্জমাদিগুলো ঘুরে দেখেন। আগামী ১৭ নভেম্বর রাঙামাটিতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স রাঙামাটি জেলা কার্যালয় থেকে জানানো হয়- ২০২২সালের অক্টোবর পর্যন্ত জেলায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে ৩৩টি। আহতের সংখ্যা ০২জন হলেও নিহত নেই। অগ্নিকান্ডে আনুমানিক ক্ষতি ৫৯লাখ, ৯৯হাজার, ৫০০টাকা। আনুমানিক উদ্ধার করা হয়েছে-২কোটি, ৭লাখ, ৯০হাজার টাকার সম্পত্তি।

এইবারে জেলায় ১৩টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে সড়ক দুর্ঘটনা ০৫টি। সড়ক দুর্ঘটনায় ০৮মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন-০৩জন। নৌ দুর্ঘটনা ঘটেছে- ০৮টি। নিহতের সংখ্যা ০৪জন। তবে কোন আহত নেই।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ৩০টি মহড়া চালানো হয়। সরকারি-বেসরকারি ২৫টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ১২টি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ২০০জন শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

এ্যম্বুলেন্স সেবার মাধ্যমে ৫১জন রোগীকে পরিবহন সেবা প্রদান করা হয়। মোট সরকারি ফি আদায় করা হয়-৫৩হাজার টাকা প্রায়।

এদিকে রাঙামাটি জেলায় চালুকৃত পায়ার স্টেশনের সংখ্যা ০৩টি। চালুর অপেক্ষা আছে ০২টি এবং জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে ০২টি এবং জমি অধিগ্রহণের অপেক্ষায় আছে ০৫টি।