স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: রাঙামাটিতে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এইবারের মৌসুমে জলেভাসা জমিতে বোরো ধানের ফলন বেশ ভাল হয়েছে। তাই কৃষকদের মুখে অট্টহাসি লেগে আছে। গত বছরও ধানের উৎপাদন ভাল হলেও করোনার কারণে শ্রমিক সংকট ছিলো এবং বিকিকিনি করে লাভের মুখ দেখনি কৃষকরা। যে কারণে কৃষকদের মধ্যে হতাশা কাজ করছিলো।

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার লাইল্যাঘোনা এলাকার কৃষক আব্দুল মোনাফ বলেন, কাপ্তাই হ্রদের পানি যথা সময়ে শুকিয়ে যাওয়ায় আমরা ধান রোপন করতে পেরেছি। এখন ফলন গোলায় তুলতে পেরে বেশ ভাল লাগছে।

বটতলী এলাকার কৃষক মুজিবুর রহমান জানান, আমি চার একর জমিতে বোরো ধানের চাষ করেছি। ধান কাটা শুরু করেছি। ফসল ভাল হওয়ায় এইবার লাভের পরিমাণটা ভাল পাওয়া যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটির পুরো জেলায় জলেভাসা জমিতে মোট একহাজার ৯০০হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষ করা হয়েছে। এতে পাঁচ হাজার ৩২০মেট্রিক টন চাল পাওয়া যাবে বলে সূত্রটি যোগ করেন।

রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষ্ণ প্রসাদ মল্লিক বলেন, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও শুষ্ক মৌসুমে কাপ্তাই হ্রদে জেগে উঠা সমতল জলেভাসা জমিতে বোরো ধানের চাষাবাদ করা হয়েছে। সরকারিভাবে বোরো প্রণোদনার আওতায় কৃষকদের হাইব্রিড বীজ ধান ও বিনামূল্যে সার দেয়া হয়েছে। ফলে বোরোতে এবার ভালো ফলন হয়েছে।