মঈন উদ্দীন বাপ্পী । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: রাঙামাটিতে করোনা আক্রান্ত ৪রোগীসহ তাদের পরিবার মিলে মোট ১৯জনের নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অভ ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজে (বিআইটিআইডি) পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (০৭মে) রাতে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন, রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জন অফিসের করোনা ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডা. মোস্তফা কামাল।

ডা: মোস্তফা বলেন, যে চারজনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে যেহেতু তারা এখনো সুস্থ্য আছেন তাই উর্দ্ধতন মহলের নির্দেশে তাদের কাছ থেকে পুনরায় এবং পাশাপাশি তাদের সংস্পর্শে থাকা পরিবারদের থেকেও নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে আক্রান্তদের বাড়িসহ তাদের আশ-পাশ লকডাউন করা হয়েছে। তাদের গভীর পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে ডা: যোগ করেন।

এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী রাঙামাটিতে সর্বমোট কোয়ারেন্টাইনে আছে ২০২১জন। এর মধ্যে- প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ৬২৯ এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১৩৯২জন। ১৬৩৪জনের কোয়ারেন্টাইন মেয়াদ শেষ হয়েছে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৩৮৭জন।

সর্বশেষ নমুনা পাঠানো হয়েছে ২৯২জনের। রিপোর্ট পাওয়া গেছে ২০২জনের। কোভিট-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে ০৪জনের এবং নেগেটিভ পাওয়া গেছে ১৯৮জনের। রিপোর্ট পাওয়া বাকী আছে ৯০জনের। তবে রাঙামাটি শহরে আইসোলোশনে কোন রোগী না থাকলেও রাজস্থলী উপজেলায় আইসোলেশনে রয়েছেন ৩জন। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাঙামাটিতে কেউ মারা যাননি বলে সূত্রে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, পাহাড়ি জেলা রাঙামাটি এতদিন ছিলো করোনামুক্ত। হঠাৎ করে বুধবার দুপুরে একজন নার্সসহ ৪জন করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়েছে। বুধবার (০৬মে) চট্টগ্রাম ভেটেরেনারী ও এ্যানিমেন্স সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে নমুনা পরিক্ষায় তাদের রিপোর্ট পভিটিভ আসে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: মোহাম্মদ শাহরিয়ার কবির। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নার্স (নারী), একজন শিশু, একজন যুবক এবং একজন প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষ রয়েছেন।