॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥

নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে রাঙামাটি জেলা সংস্থার নেতৃত্বে পালাবদলে ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ৭৩জন কাউন্সিলর ভোট প্রদানের মাধ্যমে পরিবর্তনের ঘটনা ঘটান।

এর আগে ওইদিন সকাল থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় এবং রাত ৮টার দিকে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ নজরুলল ইসলাম নির্বাচন পরিচালনা করেন।

এদিকে নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন শফিউল আজম। তিনি পেয়েছেন ৪৩ ভোট। তার প্রতিদ্বন্ধী জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক সদস্য কিংসুক চাকমা পেয়েছেন ২১ ভোট।

৩১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী এ কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে নির্বাচন করেছেন ৭জন। তাদের মধ্যে ৪জন নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন- সহ-সভাপতি পদে অ্যাড. মামুনুর রশিদ মামুন ৬০, মো: আকবর হোসেন চৌধুরী ৫৬, বরুন দেওয়ান ৪৫, প্রীতম রায় ৩৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাদের প্রতিদ্বন্ধী সুনীল কান্তি দে ৩০, মো. শাহ আলম ২৬ এবং মঈন উদ্দীন সেলিম ২৩ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করেছেন ২জন। এদের মধ্যে নিবানন চাকমা ৪০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্ধী মনোজ কুমার ত্রিপুড়া ৩০ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

যুগ্ম সম্পাদক পদে নির্বাচন করেছেন ৩জন। এদের মধ্যে বিজয়ী হয়েছেন ২জন। আবদুস সবুর ৬৬ ভোট ও মিথুল দেওয়ান ৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাদের প্রতিদ্বন্ধী শেখর সেন ২৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

এছাড়া কোষাধ্যক্ষ পদে ২জন নির্বাচন করেছেন। তাদের মধ্যে মনিরুল ইসলাম ৩৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্ধী রিজেশ বড়ুয়া ৩৪ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

কার্যকরী কমিটিতে ১৯জন নির্বাচন করেছেন। তাদের মধ্যে ১৪জন নির্বাচিত হয়েছেন। কার্যকরী কমিটির নির্বাচিত সদস্যরা হলেন- প্রদীপ বড়ুয়া ৬৬, মো. আবু তৈয়ব ৬৫ ভোট, তাপস কুমার চাকমা ৬২, আশীষ কুমার নব ৫৭, রনেন চাকমা ৫৬, সাইফুল আলম রাশেদ ৫৫, বেনু দত্ত ৫১, আহমেদ ফজলুর রশিদ সেলিম ৫২, নাসির উদ্দিন সোহেল ৪৯, আহমেদ হুমায়ুন কবির ৪৬, রমজান আলী ৪৮, ঝিনুক ত্রিপুরা ৪৫, জয়জিৎ খীসা ৪২, এবং তৌহিদুল আলম মামুন ৪১ ভোট পেয়ে বিজয়ী।

নুরুল মোস্তফা মিনার ৩৩, ফারুক আহম্মেদ তালুকদার (বিপু) ৩২, মো. শাহ আলম ৩২, ওয়াহিদুল আলম ৩১ এবং ইন্দ্র দত্ত তালুকদার ২৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সংরক্ষিত সদস্য পদে মোস্তফা কামাল ৪৫ এবং দীপেন দেওয়ান টিটু ৪৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের প্রতিদ্বন্ধী ঝিল্লোাল মজুমদার ২৫, সুদর্শন বড়ুয়া ১৫ এবং বিদর্শন বড়ুয়া ১১ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

মহিলা সংরক্ষিত পদে দুইয়ের অধিক কোন প্রার্থী না থাকায় মনোয়ারা জাহান ও বীনা প্রভা বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

৩১ সদস্য বিশিষ্ট জেলা ক্রীড়া সংস্থার কমিটির মধ্যে ২৭ জন নির্বাচিত এবং ৪ জন পদাধিকার বলে কমিটিতে স্থান পেয়ে থাকেন। তারা হলেন- পদাধিকার বলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি পদে আসীন থাকবেন জেলা প্রশাসক। এছাড়া সহ-সভাপতি পদে আসীন থাকবেন-পুলিশ সুপার,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তা । নির্বাচিত এ কমিটি আগামী ৪বছর তথা ২০১৮-২২ মেয়াদ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম জানান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আশাকরি, এ নির্বাচিত কমিটি রাঙামাটির ক্রীড়াঙ্গনকে আলোর মুখ দেখাবে বলে যোগ করেন তিনি।