॥ রাজস্থলী প্রতিনিধি ॥

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলায় প্রশাসনের অনুমোদন ছাড়াই স্কুলের গাছ কর্তন করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাঙ্গালহালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য ফ্যাসেলিটি বিভাগ থেকে ভবন নির্মাণের অনুমতি নিয়ে নির্দিষ্ট জায়গায় ভবন নির্মাণ না করে বিদ্যালয়ের পাশ্ববর্তী জায়গায় গাছ কেটে ভবন নির্মাণের প্রস্তুতি চলছে।

অভিযোগ উঠেছে, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির কারসাজিতে ,বন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন না নিয়ে রাতারাতি স্কুলের গাছগুলো কেটে গোপনে নিলামের মাধ্যমে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদেও কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা আদুমা মারমা ও পুলক বড়–য়া জানান, বাঙ্গালহালিয়া উচ্চ বিদ্যালয় একটি ঐতিহ্যবাহী উচ্চ বিদ্যালয়। গাছগুলো স্কুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করেছে। গাছগুলো কেটে একদিকে যেমন পরিবেশের ক্ষতি করা হয়েছে তেমনি স্কুলের সৌন্দর্যের হানী ঘটেছে।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াইসুইখই মারমা বলেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির উপস্থিতিতে একটি রেজুলেশন করা হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়ে ১১শো ছাত্র ছাত্রীর জন্য আবাসিক সংকলন হওয়াতে সরকার ফ্যাসিলিটিস বিভাগ হতে একটি বিল্ডিং এর অনুমোদন দেন। বিল্ডিংটি নির্মাণ করার সার্থে গাছগুলো কর্তন করে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি সদস্যের নিকট বিক্রি করা হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকারী নিয়ম নীতি অনুকরণ করতে গেলে অনেক সময়ের প্রয়োজন হওয়াতে আমরা গাছগুলো বিক্রয় করতে সক্ষম হই।

বনবিভাগ সূত্রে জানানো হয়- গাছকাটার বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষকে আমাদেও অবহিত করে নাই। আমরা এ বিষয়ে প্রশাসনিকভাবে বিভাগীয় মামলা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন জানান, গাছ কাটা বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ আমাকে অবগত করেননি। এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাকে একটি চিঠি প্রেরণ করেন। আমি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নিবো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুশফিকুর রহমান বলেন, আমার কাছে একটা অভিযোগ এসেছে। এ বিষয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও রাইখালী রেঞ্জ কর্মকর্তাকে সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য চিঠি প্রেরণ করি।