মো. আজগর আলী খান, উপজেলা প্রতিনিধি । হিলরিপোর্ট

রাজস্থলী: দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে রাস্তার সৃষ্ট একাধিক গর্ত কার্পেটিং উঠে খানাখন্দে ভরপুর রাঙামাটি জেলার রাজস্থলী বাঙালহালিয়া – চন্দ্রঘোনা সড়কটি বেহাল দশার সৃষ্টি হয়েছে। এতে সড়কটি দিয়ে চলাচল কারী যানবাহন ও এলাকাবাসীদের প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। রাজস্থলী থানার পাশ, সদর হাসপাতাল সেনাবাহিনীর ক্যাম্প সামনে দিয়ে যাতায়াতের মাধ্যম এবং রাঙুনিয়া, চট্রগ্রাম, রাঙামাটি ও ট্রানজিট রুটের সাথে সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে এ সড়কের বেশ গুরুত্ব রয়েছে। অথচ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ নজরদারির অভাবে সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে অযত্ন  অবহেলায় পড়ে রয়েছে।

সোমবার  সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, সড়কটির ৭০ ভাগ অংশেই কার্পেটিং উঠে খোয়া বের হয়ে গেছে। রাস্তায় সৃষ্ট বড় বড় গর্ত  খানাখন্দের কারণে সড়কটি দিয়ে যানবাহনের পাশা পাশি পায়ে হেঁটে চলাচল করাও বেশ কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তায় সৃষ্ট একাধিক গর্তে জমা থাকা পানিতে পায়েহেটে চলাচলকারীদের পরিধেয় কাপর চোপড় নষ্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ভাঙা ও খানাখন্দকে ভরা সড়ক দিয়ে রিক্সা ভ্যান অটো সি এনজি,প্রতিনিয়ত ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে।

রাস্তার বেহাল দশার কারনে গাড়ীর ঝাঁকুনি দিয়ে সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী অসুস্থ রোগী প্রসূতি মা এবং বয়োবৃদ্ধদের কষ্টের সীমা থাকছে না। কথা হল এ সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াতকারী বিশিষ্ট মুরগীর ফার্ম মৎস্যকামারী অাওয়ামীলীগের উপজেলা সাংঘটনিক সম্পাদক অংচাইনু মারমা জানান, গত ২/৩ বছর ধরে সংস্কারের অভাবে রাস্তায় সৃষ্ট গর্ত অার কাদায় রাজস্থলী বাঙালহালিয়া, চন্দ্রঘোনা সড়ক দিয়ে চলাচল করতে প্রতিনিয়ত নানা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এমন কি সেনাবাহিনীদের চলাচলে বিঘ্ন ঘটে এ সড়কে। অন্যদিকে সড়কটি দিয়ে নিয়মিত সিএনজি চালক নুরনবী জানান, সড়কে সৃষ্ট গর্তের কারনে প্রায় সময় তাদের গাড়ীর বিভিন্ন যন্ত্রাংশ নষ্ট হচ্ছে। ফলে দ্রুত রাস্তাটি সংস্কারের দাবী জানান।

সড়কের বেহাল দশা নিয়ে কথা হলে রাজস্থলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ ছাদেক জানান, অফিস থেকে বাহির হবার সাথে সাথে সড়কের অবস্থা দেখে খুবই কষ্ট লাগে। সরকারের কাজে বা সেনাবাহিনীর সাথে বর্তমান করোনা মহামারি সংকট নিরসনে কাজ করার কষ্টকর হয়ে পড়ে। তিনি বলেন সড়ক ও জনপদ বিভাগের সাথে যোগাযোগ করে দ্রুত সংস্কারের জন্য অবগত করা হবে।

এ বিষয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলামের সাখে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন, সড়ক সংস্কারের সরঞ্জামের অভাব নেই, আমাদের লোকজন রাজস্থলী গিয়ে রাত্রিযাপন করার কোন সুযোগ নাই। যদি থাকার ব্যবস্থা করে দেয় তাহলে সড়ক সংস্কারের উপকরণসহ লোকবল পাঠানো হবে। সড়কটি সংস্কারের জন্য রাজস্থলী বাসীর প্রাণের দাবী।