॥ লংগদু প্রতিনিধি ॥

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় গত ২জুন তিনটি গ্রামের পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘরে অগ্নি সংযোগ ঘটনার সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি প্রদান ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের যথাযথা ক্ষতিপূরণের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

শনিবার (২জুন) সকালে উপজেলার মানিকজোড়ছড়া, তিনটিলা ও উপজেলা সদর এলাকায় ক্ষতিগ্রস্থ পাহাড়ীদের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ সড়কে মানববন্ধন করা হয়।
ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মধ্যে ১নং আটারকছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ৭নং লংগদু ইউপি চেয়ারম্যান কুলিন মিত্র চাকমা (আদু), ২৪ নং মাইনীমুখ মৌজার হেডম্যান মানিক কুমার চাকমা।

বক্তারা বলেন, একজন যুবলীগ নেতা হত্যাকান্ডকে নিয়ে লংগদুতে তিনটি গ্রামে পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনা অত্যান্ত মর্মান্তিক ও দুঃখজনক ঘটনা। বক্তারা এই ঘটানার সাথে জড়িত ব্যাক্তিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন।

বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল হতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ২১৩ পরিবারের জন্য ১৭৬টি বাড়ী নির্মাণ করে দিচ্ছেন।

মানববন্ধন শেষে ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষ থেকে লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন ক্ষতিগ্রস্থ পরিবাররা।

গত ২০১৭ সালে ২জুন মাসে লংগদুর যুবলীগ নেতা ও মোটরসাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়ন এর হত্যাকান্ডের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষুব্দ লোকজন লংগদু সদর, তিনটিলা, ও মানিকজোরছড়া গ্রামে পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘরে অগ্নি সংযোগ করলে এতে ২১৩টি পরিবারের ঘর-বাড়ী ও দোকানপাট পুড়ে যায়।

অবশেষে ঘটনার এক বছরের মাথায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় বসত ঘর নির্মাণ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে।