॥ লংগদু প্রতিনিধি ॥
রাঙামাটির লংগদু উপজেলায়  এগারো বছরের এক  শিশু কন্যাকে ধর্ষনের অভিযোগে সৎ বাবা আল আমিন (৩৫) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৯নভেম্বর) সকালে ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে-  উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়নের জাফর আলীর ছেলে আল-আমিন তার প্রথম স্ত্রী তিন সন্তানের জননী ফাতেমা বেগমকে রেখে সাত সন্তানের  জননী এক নারীকে বিয়ে করে  বসবাস করছে।  নতুন ওই সংসারে সাত সন্তানের মধ্যে সবার ছোট স্থানীয় একটি  স্কুলে পিএসসি পরিক্ষা দেওয়া কন্যা শিশুটিকে বিভিন্ন সময় লাঞ্চিত কওে আসছে আল-আমিন। এ বিষয়টি কন্যা শিশুটির মা জানলেও তিনি কোন প্রতিবাদ করেনি।
অশেষে গত বুধবার সৎ পিতা আল আমিন পুনরায় শিশুটিকে  ধর্ষণের চেষ্টা করলে শিশুটি তার  বড় বোনকে এ বিষয়ে অবগত করে। এরপর শিশুটির বড় ভাই বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার লংগদু থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে (সংশোধনী ২০০০) মামলা দায়ের করলে পুলিশ আল আমিনকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।
এদিকে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের বিচারের দাবিতে দুপুরে উপজেলার স্থানীয় বাসিন্দারা একটি মানবন্ধন করে এবং আটক ওই ব্যক্তিকে  দেশের প্রচলিত আইনে যথাযথ শাস্তি প্রদানের দাবি জানান।
লংগদু থানার পরিদর্শক (তদন্ত ওসি) মহিউল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আল-আমিনের বিরুদ্ধে ধর্ষনের চেষ্টায়  থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ (সংশোধিত) আইনে একটি এবং এলাকায়  পশু নির্যাতন ও হত্যার অভিযোগ এনে একটিসহ মোট দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটক আল আমিনকে রাঙামাটি আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা