স্টাফ রিপোর্টার । হিলরিপোর্ট

রাঙামাটি: রাঙামাটির লংগদু উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকারের প্রতিনিয়ত প্রাণনাশের হুমকি থেকে বাঁচতে চেয়ে সংবাদ সন্মেলন করেছে মোসলেম উদ্দীন নামের এক ব্যক্তি। মঙ্গলবার (২৫আগষ্ট) বিকেলে রাঙামাটি রিপোটার্স ইউনিটি কার্যালয়ে এই সংবাদ সন্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সন্মেলনে মোসলেম উদ্দীন বলেন, আমি একজন শারীরীক প্রতিবন্ধী ও আ’লীগের একজন সক্রিয় কর্মী। আমার নিজের নামে রাঙামাটির লংগদু উপজেলার ৩৮নং গুলশাখালী মৌজার এক একর ৩৫শতক জায়গা রেকর্ডীয় জায়গা আছে। আমার রেকর্ডীয় জায়গা ২০১৮সালের ৪এপ্রিল গুলশাখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবু নাছের এর ছোট ভাই রুহুল আমীন জোর করে দখল করে নিয়েছে। এরপর প্রতিকার চেয়ে উক্ত জায়গার পূর্বের মালিক আবুল কাসেম বাদী হয়ে প্রতিকার চেয়ে রাঙামাটি জেলার বিজ্ঞ দেওয়ানী আদালতে উচ্ছেদ মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং ২৫৬/২০১৮।

তিনি আরও বলেন, এরপর দখলদার রুহুল আমীন আপোষে মিমাংসা করার জন্য বাদীকে চাপ দিতে থাকে। এরপর রুহুল আমীন উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকারকে এই ব্যাপারে আপোষ করার জন্য অনুরোধ করে। চলতি বছরের গত ২০ জুলাই চেয়ারম্যান উভয় পক্ষকে বসার জন্য নোটিশ পাঠান। যথা সময়ে উভয় পক্ষ চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হাজির হয়। কিন্তু চেয়ারম্যান বাদী পক্ষের বক্তব্য শ্রবণ না কওে বাদীকে উল্টো হুমকি দিয়ে দু’টি সাদা কাগজে স্বাক্ষর গ্রহণ করে আগামী ২৮জুলাই নিজে রায় দিবেন বলে ঘোষণা দেন। এরপর চেয়ারম্যান রুহুল আমীনের বাড়িতে গিয়ে বাদীকে আড়াই লাখ টাকায় রফা-দফা করার প্রস্তাব দেন। এরপর বাদী এই রায় মেনে নিতে অস্বীকার করলে সমস্যা হবে হুমকি দেন চেয়ারম্যান।

তিনি জানান, চেয়ারম্যান গত ১৬আগষ্ট বাদীর জামাতা ও মামলার ২নং স্বাক্ষীকে ডেকে বলেন, আগামী ১৭আগষ্ট সকালে ২-৩জন স্বাক্ষী নিয়ে বাদীকে উপজেলা আ’লীগের দলীয় কার্যালয়ে হাজির হতে নির্দেশ দেন।এরপর চেয়ারম্যানের নির্দেশ মেনে বাদী পক্ষ হাজির হলে চেয়ারম্যান বাদী পক্ষকে ৬লাখ টাকায় মিমাংসার প্রস্তাব দেন। বাদী বলেন, আমি ৪০-৫০লাখ টাকার জায়গা কিভাবে ৬লাখ টাকায় দিবে এবং প্রস্তাবনা নাকচ করলে চেয়ারম্যান নিজে বেধড়ক পিঠুনী দেয় বাদীকে। বর্তমানে তিনি চেয়ারম্যানের ভয়ে এলাকা ছাড়া বলে জানান এবং সরকারের কাছে আবেদন করেন, তিনি যেন চেয়ারম্যানের প্রাণনাশের হুমকি থেকে বাঁচতে পারেন।

ভুক্তভোগী মোসলেম উদ্দীন ছাড়াও তার জামাতা মো.জালাল এবং স্বজন মণির হোসেন এবং সাদ্দাম হোসেন সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ।