॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

সরকারী নিয়ম-কানুনকে তোয়াক্কা না করে কৃষি জমি খনন করে ইট ভাটায় মাটি ব্যবহারের ফলে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারা অপরাধে সেলিম এন্ড ব্রাদার্স নামক ফার্মের স্কেভেটর চালক মোঃ ইসমাইল (২৬) কে ৫০,০০০/- (পঁঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা করেছেন খাগড়াছড়ি ভ্রাম্যমান আদালত।

রোববার (৩মার্চ) বিকালে খাগড়াছড়ি-মহালছড়ি সড়কের গুগড়াছড়ি নামক এলাকায় মূল সড়কের পাশে স্কেভেটর দিয়ে ফসলি (কৃষি) জমি খনন করে সেলিম এন্ড ব্রাদার্স-এর ব্রীক ফিল্ডে ইট তৈরীর কাজে ব্যবহার করার ফলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খান মোঃ নাজমুস শোয়েব।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকালে স্কেবেটার চালক মোঃ ইসমাইলকে হাতে নাতে আটক করে। পরে বালু ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারা অনুযায়ী ৫০,০০০/- (পঁঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা করে চালককে ছেড়ে দেয়। সেলিম এন্ড ব্রাদার্স এর মালিক বিশিষ্ট ঠিকাদার মোঃ সেলিমের নিকট মূল সড়কের পাশে কৃষিজমি খনন সম্পর্কে মুটোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি আইনকে অমান্য করায় আদালত ৫০,০০০/- (পঁঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা করেছে।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খান মোঃ নাজমুস শোয়েব বলেন, সরকারি নিয়মকে অমান্য করে কৃষি জমি খনন করার অপরাধে সেলিম এন্ড ব্রাদার্স নামক ফার্মের স্কেভেটর চালক মোঃ ইসমাইল-কে ৫০,০০০/- (পঁঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে প্রশাসনের এ ধরনের সাহসী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন-এর সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী ও সা: সম্পাদক সাংবাদিক মুহাম্মদ আবু দাউদ।

সংগঠনটির পক্ষ থেকে জেলা শহরের পৌর এলাকা এবং জেলার বিভিন্নস্থানে অবাধে পাহাড়কাটা, নদী-খাল-ছড়া থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন এবং জলাধার ভরাটের বিষয়েও আইনী পদক্ষে গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।