॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

খাগড়াছড়ির নয় মাইলে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের পর হত্যার ঘটনায় উত্তপ্ত হয়েছে উঠেছে পাহাড়ী জনপদ খাগড়াছড়ি। হত্যাকারীদের শাস্তির দাবীতে উত্তাল হয়ে উঠেছে মহাসড়ক। রাস্তায় নেমে এসেছে বিভিন্ন সংগঠনসহ স্থানীয় ত্রিপুরা জনগোষ্ঠিসহ সাধারণ জনগন।

নয় মাইল গুচ্ছগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরা (পুনাতি) কে ধর্ষণের পর হত্যার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবীতে সোমবার (৩০জুলাই) সকালে শহরের টাউন হল থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাপলা চত্বরে এসে মানববন্ধন করে বিক্ষুদ্ধ জনতা।

খাগড়াছড়ির প্রাণ কেন্দ্র শাপলা চত্ত্বরে মানববন্ধন থেকে বক্তরা অভিলম্বে ধর্ষকদের খুজে বের করে হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটির ব্যানারে এতে ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরামসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সংহতি প্রকাশ করে বিক্ষোভ করে শাপলা চত্ত্বরে গিয়ে মানববন্ধন থেকে বৃহস্পতিবার স্কুলে স্কুলে কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচী ঘোষনা দেয় শিক্ষক নেতারা।

এ সময় প্রকৃত দুস্কৃতিকারীদের গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করে। মানববন্ধনের আগে আদালত সড়কের প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক অররোধ করে বিক্ষোভ করে কয়েকটি সংগঠন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ কেন্দ্রীয় শাখার সভাপতি নলেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি নুরুল আজম, খাগড়াপুর মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক শেফালিকা ত্রিপুরা প্রমুখ।

খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) আফতাব উদ্দিন বলেন, ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় নিহতের মা অনুমতি ত্রিপুরা বাদী হয়ে মামলা করেছে। দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার দুপুরে পুনাতি ত্রিপুরা স্কুল থেকে টিফিনে ভাত থেকে এসে দিনের কোন এক সময় দৃস্কৃতিকারী কর্তৃক ধর্ষনের পর হত্যার শিকার হয়। এ ঘটনায় নিহতের মা অনুমতি ত্রিপুরা বাদি হয়ে দীঘিনালা থানায় অজ্ঞাত কয়েকজন আসামী করে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন।